June 20, 2024

ঐতিহ্যবাহী নজমু নাট্য নিকেতনের ৯০তম বর্ষপূর্তি অনুষ্ঠানে নজমু নাট্য নিকেতন নিয়ে বিতর্ক? নজমু নাট্য নিকেতনের সমস্ত দায়িত্ব পৌর সভার হাতে তুলে দিলেই উন্নয়ন হতে পারে_পৌর পিতা – রাম নিবাস

1 min read

ঐতিহ্যবাহী নজমু নাট্য নিকেতনের ৯০তম বর্ষপূর্তি অনুষ্ঠানে নজমু নাট্য নিকেতন নিয়ে বিতর্ক? নজমু নাট্য নিকেতনের সমস্ত দায়িত্ব পৌর সভার হাতে তুলে দিলেই উন্নয়ন হতে পারে_পৌর পিতা – রাম নিবাস

তপন চক্রবর্তী,কালিয়াগঞ্জ,৫সেপ্টেম্বর: ঐতিহ্যবাহী নজমু নাট্য নিকেতনের ৯০তম বর্ষপূর্তি অনুষ্ঠানে নজমু নাট্য নিকেতন নিয়ে বিতর্ক? নজমু নাট্য নিকেতনের সমস্ত দায়িত্ব পৌর সভার হাতে তুলে দিলেই উন্নয়ন হতে পারে_পৌর পিতা – রাম নিবাস।নজমু নাট্য নিকেতনের দায়িত্ব রাজনৈতিক প্রভাব মুক্ত রাখতেই হবে. ভারতেন্দ্র: রবিবার উত্তর দিনাজপুর জেলার কালিয়াগঞ্জ শহরের ঐতিহ্যবাহী সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির পিঠস্থান নজমু নাট্য নিকেতনের ছয় দিন ব্যাপী ৯০ তম বর্ষ পূর্তি উৎসবের সূচনা হল রবিবার সন্ধায়।৯০ তম বর্ষপূর্তির শুভ সূচনা করেন প্রদীপ প্রজ্বলনের মাধ্যমে যৌথ ভাবে নাট্য ব্যক্তিত্ব সুভাষ কমল গুহ,বিশিষ্ট নৃত্যশিল্পী বাণী চক্রবর্তী,বিশিষ্ট সঙ্গীত শিল্পী মনীষা কুন্ডু ও ভারতেন্দ্র চৌধুরী যৌথ ভাবে।

বর্ষপূর্তি অনুষ্ঠানে স্বাগত ভাষণ দেন নজমু নাট্য নিকেতনের সাধারণ সম্পাদক চন্দন চক্রবর্তী।প্রধান অতিথির ভাষণে কালিয়াগঞ্জ পৌর সভার চেয়ারম্যান রাম নিবাস সাহা তার বক্তব্যে বলেন কালিয়াগঞ্জ নজমু নাট্য নিকেতনের সংস্কারের কাজ বিশিষ্ট ব্যক্তিদের আর্থিক সহায়তায় হলেও তা প্রয়োজনের তুলনায় অতি নগণ্য বলেই তিনি মনে করেন।তাই তিনি কালিয়াগঞ্জ নজমু নাট্য নিকেতনের বর্তমান পরিচালক মন্ডলীর কাছে আবেদন করে বলেন কালিয়াগঞ্জ পৌর সভার হাতে নজমু নাট্য নিকেতনের দায়িত্বভার তুলে দেওয়া উচিত।

পৌর সভার হাতে তুলে দিলে তাহলে তারা একটি অত্যাধুনিক আধুনিক মানের নজমু নাট্য নিকেতন কালিয়াগঞ্জ পৌর শহরের নাগরিকদের হাতে তুলে দিতে পারবেন বলে প্রতিশ্রুতি দেন।চেয়ারম্যান রাম নিবাস সাহা বলেন কয়েকদিন আগে এই মঞ্চে তৃণমূলের বিধায়ক মদন মিত্র এসেছিলেন।আমার সৌভাগ্য হয়েছিল তার পাশে বসবার।মদন দা আমাকে জিজ্ঞাসা করেছিলেন এই মঞ্চ কি শীততাপ নিয়ন্ত্রিত? বলেছিলাম না।সভায় বক্তব্য রাখেন সংস্থার প্রাক্তন সম্পাদক ভারতেন্দ্র চৌধুরী। তিনি বলেন বর্তমান পৌর পিতাই প্রথম নয়।

এর পূর্বেও কয়েক বছর পূর্বে নজমু নাট্য নিকেতনের দায়িত্ব পৌর সভা নেবার জন্য উঠেপরে লেগেছিল নিজেদের দখলে নেবার জন্য । তিনি সম্পাদক থাকার সময তাকে হেনস্থা করবার জন্য জেলা শাসক জেলার তথ্য আধিকারিককে দিয়ে বিভিন্ন ভাবে তার আমলের হিসাবে কোন রকম কারচুপি করা হয়েছিল কিনা তা তথ্য আধিকারিক বিভিন্ন ভাবে খুঁটিয়ে খুঁটিয়ে দেখে একটি টাকারও কোন বেহিসাবি কিছু না পাবার কারনে সে যাত্রায় সেখানেই পৌর সভা থেমে যায়।

 

তাদের আশা পুরন হয় নি।তাই নুতন পৌর পিতা ক্ষমতা পেয়েই সেই একই সুরে গান ধরেছেন। ভারতচন্দ্র চৌধুরী জানান তৃণমূলের টাকারতো কোন অভাব নেই।নুতন করে সরকারি ভাবে কেন আর একটি মঞ্চ তৈরি করা হচ্ছে না?কালিয়াগঞ্জে সব সময়ের জন্য দুইটি মঞ্চ থাকলে সবার সুবিধা হতে পারে।তবে পৌর সভার পক্ষ থেকে মঞ্চের মত কি যেন বানানো হচ্ছিল। তবে সেটা জন্মেও নাকি আর শেষ হবেনা বলে জানা গেছে। ঐতিহ্যবাহী নজমু নাট্য নিকেতনের মত সংস্থাটিকে সব সময় রাজনীতি মুক্ত রাখতে হবে বলেই তিনি মনে করেন। বক্তব্য রাখেন নৃত্য শিল্পী বাণী চক্রবর্তী,বিশিষ্ট সঙ্গীত শিল্পী মনীষা কুন্ডু এবং সংস্থার সভাপতি অশোক ঘোষ।

সংস্থার সাধারন সম্পাদক চন্দন চক্রবর্তী জানান ৪ঠা সেপ্টেম্বর থেকে এই বর্ষ পূর্তি অনুষ্ঠানকে আগামী ৯iই সেপ্টেম্বর পর্যন্ত সঙ্গীত,নৃত্য ও নাটক দিয়ে বিভিন্ন দিনের অনুষ্ঠানকে সাজানো হয়ছে এই দিনের অনুষ্ঠানকে কালিয়াগঞ্জ পৌরশহরের মানুষদের আনন্দ দিতে। অনুষ্ঠানের প্রথম দিনে ছিল কালিয়াগঞ্জ শহরের ৭ টি নৃত্য বিদ্যালয়ের নৃত্যানুষ্ঠান এবং একটি সঙ্গীত বিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীদের দ্বারা সঙ্গীতানুষ্ঠান। দ্বিতীয় দিনের অনুষ্ঠানে কালিয়া গঞ্জের আটটি সঙ্গীত বিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীদের সঙ্গীতা অনুষ্ঠান।অনুষ্ঠান সূচির তৃতীয় দিনের অনুষ্ঠানে থাকবে নৃত্য অনুষ্ঠান ও দুটি নাটক। চতুর্থ দিনের অনুষ্ঠানে থাকবে দুটি নাটক।পঞ্চম দিনের অনুষ্ঠানে থাকবে দুটি নাটক ষষ্ঠ দিনের অনুষ্ঠানে থাকবে দুটি নাটক।

রবিবারের নজমু নাট্য নিকেতনে আসা সাধারন মানুষের বক্তব্য কালিয়াগঞ্জ নজমু নাট্য নিকেতন কালিয়াগঞ্জের মানুষদের অনেক কিছু দিলেও সেই পরিপ্রেক্ষিতে কালিয়াগঞ্জের মানুষদের কাছ থেকে কিছুই পায়নি।যা পাওয়া প্রয়োজন ছিল।শুধু তাই নয় ৯০বছর বর্ষ পূর্তির অনুষ্ঠানে নজমুর কি একটু অঙ্গ সজ্জার ইচ্ছা হয়না?সে ইচ্ছাটাও কি তার পুরন করা যেতে পারতো না? অথচ কালিয়াগঞ্জ শহরে কোন নাট্য উৎসব হলে নজমু নাট্য নিকেতনের সামনে আলোক সয্যায় সজ্জিত করা হয়ে থাকে।৯০বছরের বর্ষ পূর্তিতে সেই আলোক ঝলমলে নজমূর চেহারা দেখা না যাওয়ায় অনেকেই হতাশ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও খবর..