April 12, 2024

জি এস টির মরন কামড়ের ঠেলায় উত্তর দিনাজপুর জেলায় ৪৮টি ইট ভাটা বন্ধ হবার পথে

1 min read

জি এস টির মরন কামড়ের ঠেলায় উত্তর দিনাজপুর জেলায় ৪৮টি ইট ভাটা বন্ধ হবার পথে

তপন চক্রবর্তী,কালিয়াগঞ্জ,২৫জুলাই:এবার কি তবে বিলুপ্তির পথে বাংলার ইট শিল্প? ইট শিল্পের সাথে যুক্ত মালিক শ্রমিকদের সাথে কথা বলার পর তারা সাংবাদিকদের জানালেন কেন্দ্রীয় সরকারের হঠকারী সিদ্ধান্তের কারণে ইট শিল্প বন্ধের কারনে বন্ধ হয় যেতে পারে হাজার হাজার শ্রমিকদের রুজি রোজগার।জানা যায় কেন্দ্রীয় সরকার একদিকে যেমন ছাই দিয়ে তৈরি ইটের উপর সরকার ছার দিচ্ছে ঠিক অন্যদিকে মাটির তৈরি ইটের উপর চাপানো হচ্ছে বাড়তি জি এস টি? উত্তর দিনাজপুর জেলার ব্রিক ফিল্ড ওনার্স অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি গোপী বাজাজ বলেন কেন্দ্রীয় সরকারের জি এস টির মরন কামড়ের জেরে উত্তর দিনাজপুর সহ সারা রাজ্যে ইট শিল্পে ব্যাপক ধাক্কায়।

 

সেই কারনে রবিবার রায়গঞ্জের মিউনিসিপ্যাল পার্কে দুই দিনাজপুর মালদা এবং দার্জিলিং জেলার ইট ভাটা মালিকরা একত্রিত হয়ে আগামী নভেম্বর মাস থেকে সমগ্র পশ্চিমবঙ্গে ইটভাটা বন্ধ হয়ে যেতে পারে বলে ঘোষণা করেন। সংগঠনের রাজ্য সভাপতি যোগেশ আগরওয়াল বলেন জি এস টির কারনে যেভাবে ইটের উৎপাদনখরচ বেড়ে গিয়েছে তাতে প্রতিদিনের খরচটাও ওঠানো সম্ভব হচ্ছে না।অ্যাসোসিয়েশনের রাজা সাধারন সম্পাদক দিলীপ ঘোষ বলেন রেগুলার ইট ভাটার মালিকদের ক্ষেত্রে যেখানে আগে জি এস টি ছিল ৫ শতাংশ সেখানে বাড়ানো হয়েছে ১২শতাংশ। কম্পোজিট ক্ষেত্র যেখানে ১শতাংশ ছিল সেখানে বেড়ে দাড়িয়েছে ৬ শতাংশ।পাশাপাশি শ্রমিক চুক্তির উপর যেখানে কোন জি এস টি ছিলনা সেখানে এক ধাক্কায় ১২ শতাংশ বৃদ্ধি করা হয়েছে। উত্তর দিনাজপুর ব্রিকস ফিল্ড ওনার্স অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক অমরেশ মুন্দ্রা বলেন উত্তর দিনাজপুর জেলায় মোট ৪৮ টি ইটভাটা আছে।যেখানে দশ হাজার শ্রমিক ইট ভাটার বিভিন্ন কাজের সাথে যুক্ত।যায় মধ্যে কালিয়াগঞ্জের বিভিন্ন গ্রামে মোট ১৬টি ইট ভাটা আছে।উত্তর দিনাজপুর জেলা তথা কালিয়াগঞ্জ শহরের বিশিষ্ট শিল্পপতি স্বপন সরকর অল ইন্ডিয়া ব্রিক্স এন্ড টাইলস অ্যাসোসিয়েশন সম্পর্কে বিস্ফোরক মন্তব্য করে বলেন এই সংগঠনটি প্রতিনিয়ত মাটির প্রস্তুত ইট শিল্পের বিরুদ্ধে লাগাতার কাজ করে যাচ্ছে। এদের আসল উদ্দেশ্য এই ইট শিল্প যাতে কোনভাবেই প্রসার নাঘটতে পারে।যা কোন ভাবেই মেনে নেওয়া যায়না।রায়গঞ্জের সাংসদ তথা প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী দেবশ্রী চৌধুরী রবিবার এক সাক্ষাৎকারে বলেন হয়তোবা কিছু একটা অসুবিধা হয়েছে। সে ক্ষেত্রে যদি ব্রিক ফিল্ড ওনার্স অ্যাসোসিয়েশনের পক্ষ থেকে তাদের সমস্যা নিয়ে আসেন তাহলে নিশ্চয়ই তাদের সমস্যা সমাধানে অবশ্যই তাদের সহযোগিতা করবো বলে দেবশ্রী চৌধুরী জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *