April 14, 2024

দুর্নীতির বিরুদ্ধে দলীয় তদন্তের নামেও জালিয়াতি ও দুর্নীতির অভিযোগ, উত্তর দিনাজপুর জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের একি হাল।

1 min read

দুর্নীতির বিরুদ্ধে দলীয় তদন্তের নামেও জালিয়াতি ও দুর্নীতির অভিযোগ, উত্তর দিনাজপুর জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের একি হাল।

তন্ময় চক্রবর্তী, কালিয়াগঞ্জ।দুর্নীতি আর পিছন ছাড়ছে না তৃণমূল কংগ্রেসের। জনগনের কথায় উন্নয়নের মোড়কে দূর্নীতি এখন রাস্তায় নাকি দাঁড়িয়ে আছে। উত্তর থেকে দক্ষিণ সর্বত্র তৃণমূল কংগ্রেসের সংগঠনের মধ্যে এমনকি তৃণমূল কংগ্রেস পরিচালিত খোদ সরকারের বিভিন্ন দপ্তরে দুর্নীতির রমরমা বাজার। সেই দুর্নীতি সহ গায়ে কাঁটা দেওয়া রোমহর্ষক দুশ্চরিত্র কীর্তিকলাপ শুরু হয়েছিল উত্তর দিনাজপুর জেলা আই,এন,টি,টি,ইউ,সি সভাপতি শেখর দাস কর্তৃক। ইতিমধ্যেই বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশিত হয়েছে উত্তর দিনাজপুর জেলা INTTUC সভাপতি শেখর দাসের আর্থিক জালিয়াতি, নানাবিধ সাংগঠনিক দুর্নীতি সহ অতি নোংরা দুশ্চরিত্রের সংবাদ।

 

কালিয়াগঞ্জ শহরের তৃণমূল কংগ্রেসের পরিবারের সন্তান শুভজিৎ সরকার যারএবং যার পরিবারের সাথে শেখর দাস এইসকল ঘটনা ঘটিয়েছিল সেই অভিযোগকারী শুভজিৎ সরকার ইতিমধ্যেই উত্তর দিনাজপুর জেলা INTTUC সভাপতি শেখর দাসের বিরুদ্ধে আর্থিক জালিয়াতি, সাংগঠনিক দুর্নীতি, নোংরা দুশ্চরিত্রের যাবতীয় তথ্য প্রমাণ সহ তৃণমূল কংগ্রেসের উত্তর দিনাজপুর জেলা নেতৃত্ব থেকে শুরু করে রাজ্যের সর্ব্বোচ নেতৃত্ব দের কাছে অভিযোগ দায়ের করে এসেছিল বিভিন্ন পর্যায়ে বিগত ৬ মাস ধরে। দলীয় নেতৃত্বের বিভিন্ন টালবাহানা চলতেই থাকে সঠিক সত্য তথ্য প্রমাণাদি পাওয়া সত্ত্বেও শেখর দাসের বিরুদ্ধে। এরই মধ্যে গত ১৩ মে ২০২২ তারিখে রাজ্য INTTUC সভাপতি ঋতব্রত বন্দোপাধ্যায় টেলিফোন মারফত অভিযোগকারী শুভজিৎ সরকার কে জানিয়ে দেন উত্তর দিনাজপুর জেলা INTTUC সভাপতি শেখর দাসের বিরুদ্ধে দলীয় তদন্ত শুরু করার নির্দেশ দিয়েছেন অভিযোগকারীর নির্দিষ্ট অভিযোগের ভিত্তিতে এবং শেখর দাস কে শোকজ করা হয়েছে। একি সাথে শোকজ ও দলীয় তদন্ত বিষয়টি কাকতলীয় ঘটনা বলে মনে করেন অভিযোগকারী শুভজিৎ সরকার।

                                                                                                                         উত্তর দিনাজপুর জেলা INTTUC সভাপতি শেখর দাস

 

তাঁর নির্দিষ্ট অভিযোগের ভিত্তিতে আজকের এই প্রতিবেদন। দুইমাস হতে চললো কোনো কিছুর রেজাল্ট নেই অথচ শোকজ হওয়া নেতা কিভাবে এই দুইমাসের মধ্যে বিভিন্ন জায়গায় তৃণমূল কংগ্রেসের শ্রমিক সংগঠন INTTUC এর সভায় এবং তৃণমূল কংগ্রেসের রাজনৈতিক মঞ্চে আসন অলংকৃত করতে পারেন এই নিয়েও অভিযোগ শুভজিৎ সরকারের। এরপরে আজকের প্রতিবেদনের শিরোনাম দুর্নীতির বিরুদ্ধে তদন্তের চিঠি টির মধ্যে দুর্নীতি এই প্রসঙ্গে গত ১৬ মে ২০২২ তারিখে অভিযোগকারী শুভজিৎ সরকারের তাঁর নির্দিষ্ট মোবাইল নং এর হোয়াটসঅ্যাপ ম্যাসেঞ্জারে উত্তর দিনাজপুর জেলা যুব তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি কৌশিক গুন একটি ম্যাসেজ করে চিঠি পাঠান। উত্তর দিনাজপুর জেলা INTTUC সভাপতি শেখর দাসের বিরুদ্ধে দলীয় তদন্তের নামে কৌশিক গুনের প্রেরিত ম্যাসেজে উক্ত চিঠি টি নিয়ে একরাশ প্রশ্ন তৃণমূল কংগ্রেসের বিভিন্ন নেতৃত্বদের মধ্যে যেমন ভাবে চর্চিত হচ্ছে তেমনি অভিযোগকারী উক্ত চিঠি টি যাহা ইনফরমেশন আকারে ম্যাসেজ মাধ্যমে পেয়েছে সেটাও যে দূর্নীতি তে মোড়া।

 

                                                                                    অভিযোগকারী শুভজিৎ সরকার

কেমন ভাবে দূর্নীতি তে মোড়া এই প্রশ্নের উত্তরে অভিযোগকারী শুভজিৎ সরকার কৌশিক গুনের মোবাইল মারফত উক্ত ইনফরমেশন টি দেখিয়ে বলেন প্রথমত উত্তর দিনাজপুর জেলা তৃণমূল কংগ্রেস সভাপতি কানাইয়ালাল আগরওয়াল নিজের লেটার প্যাড ব্যাবহার ছাড়াই একটি সাদা কাগজে টাইপ করে আমাকে জানাচ্ছেন অথচ আমার নাম উল্লেখ করেন নি, দ্বিতীয়ত তিনি দলীয় তদন্ত শুরু করেছেন উত্তর দিনাজপুর জেলা INTTUC সভাপতি শেখর দাস নয় , শেখর রায়ের বিরুদ্ধে অর্থাৎ জেলা তৃণমূল কংগ্রেস সভাপতি হয়ে কি তিনি সাংগঠনিক ভাবে জেলা INTTUC সভাপতি শেখর রায় কে চেনেন যিনি হয়তো হেমতাবাদ ব্লকের তৃণমূল কংগ্রেসের ব্লক সভাপতি।

 

তৃতীয়তঃ উক্ত তদন্ত নামক ইনফরমেশনে উত্তর দিনাজপুর জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতির সিল সহ কানাইয়ালাল আগরওয়াল ইনিশিয়াল যে স্বাক্ষর টি করেছেন সেই স্বাক্ষর টি কি আদতে কানাইয়ালাল আগরওয়াল মহাশয়ের এই নিয়েও অভিযোগকারী শুভজিৎ সরকার আমাদের সংবাদ মাধ্যমের কাছে দারস্থ হয়েছেন।

এদিকে শেখর দাসের বিরুদ্ধে তদন্তের নামে ইতিমধ্যেই উত্তর দিনাজপুর জেলা যুব তৃণমূল কংগ্রেস সভাপতি কৌশিক গুন অভিযোগকারী শুভজিৎ সরকারের সাথে তদন্ত কমিটির সদস্যরা বসবেন বলে দুটি তারিখ নির্দিষ্ট করে দিয়েও অজুহাতে বসেন নি। তবে ইতিমধ্যেই দৈনন্দিন যেভাবে একের পর এক বিভিন্ন দুর্নীতি গুলো উন্নয়নের মোড়ক ঝেড়ে মাথা উঁচু করে দাঁড়িয়ে পরছে সেখানে উত্তর দিনাজপুর জেলা INTTUC সভাপতি শেখর দাস কর্তৃক সাংগঠনিক দুর্নীতি, আর্থিক জালিয়াতি, নোংরা দুশ্চরিত্রের ইতিঘটনা এবং এই বিষয়ের বিরুদ্ধে দলীয় তদন্তের নামে ইনফরমেশন সহ যাবতীয় ঘটনা দুর্নীতির মোড়কে একাকার হয়ে গেছে যা ইতিমধ্যেই উত্তর দিনাজপুর জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের অন্দরে মিচকি হাসির খোরাক।

7 thoughts on “দুর্নীতির বিরুদ্ধে দলীয় তদন্তের নামেও জালিয়াতি ও দুর্নীতির অভিযোগ, উত্তর দিনাজপুর জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের একি হাল।

  1. There is a good reason why we only offer quality generic medications at OnlineGenericMedicine overnight cialis delivery 38 The Combination of Avodart and Tamsulosin CombAT study evaluated tamsulosin and dutasteride combination therapy in 4844 men with signs and symptoms of BPH; after 24 months, the rate of ED was 3

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *