April 22, 2024

যাত্রিক নাট্য গোষ্ঠীর সময়োচিত নাটক “খেলা” মানুষের মন কেড়ে নিল

1 min read

যাত্রিক নাট্য গোষ্ঠীর সময়োচিত নাটক “খেলা” মানুষের মন কেড়ে নিল

তপন চক্রবর্তী,কালিয়াগঞ্জ,১৪জুন:উত্তর দিনাজপুর জেলার কালিয়াগঞ্জ এর ঐতিহ্যবাহী নাট্যগোষ্ঠী যাত্রিক রবিবার কালিয়াগঞ্জ নজমু নাট্য নিকেতনে এ বছরের দ্বিতীয় প্রজোযনা “খেলা” নাটকটি মঞ্চস্থ করে কিছু সময়ের জন্য দর্শকদের মন জয় করে নিল। নাটকের মূল বক্তব্য ছিল বর্তমানে উচ্চ প্রতিষ্ঠিত সন্তানেরা বিদেশে থাকার কারনে বৃদ্ধ বৃদ্ধা মা বাবাদের সাথে কখনো সখ নো কথা বার্তা বলে ঠিকই কিন্তু তা মন থেকে নয়। ছেলের শোকে কাঁদতে কাঁদতে মায়ের মস্তিষ্ক বিকৃতি ঘোড়ার সাথে সাথে চোখের জ্যোতিও চলে গেছে।

ফলে মা বাবা থেকেও না থাকার মতই।সেই বাবা মার কাছে ছেলে বা তার স্ত্রী না এসে কোন এক এজেন্টের মাধ্যমে ভাড়া করা ছেলে ও ছেলের বৌ বাবা মার কাছে পাঠিয়ে দেয় প্রক্সি দেবার জন্য।যাতে মা বাবা ভাবতেই পারে বিদেশে ছেলে থাকলেও তাদের ছেলে ও ছেলের বৌ কত দায়িত্ব ও কর্তব্যবোধ যা ভাবাই যায়না।কিন্তু বাধ সাধলো বিদায় বেলায় যাবার সময়।আসলে মায়ের মন চোখে দেখতে না পারলেও মা বুঝতে পেরেছে এই ছেলে এবং বৌ আসলে তার ছেলে ও বৌমা নয়।আসলে মা বাবাকে শান্তনা দিতে তার ছেলে ভাড়া করা ছেলে ও বৌমা পাঠিয়েছে।

মায়ের বুঝতে অসুবিধা হয়নি তাই যাবার সময় মা নকল ছেলে ও বৌমাকে মা বলেই ফেললেন আমার ছেলেকে দশ মাস দশ দিন গর্ভে ধারন করেছি।তাই কোনটি নিজের ছেলে আর কোনটি পরের ছেলে এটুকুই যদি না বুঝি তাহলে মা হলাম কি করে?তাই ভাড়া করা ছেলে ও বৌমা যখন যাবার মুখে তখন মা বলছে আমার অশোক।ও বৌমা কবে আসবে? এত টাকা পয়সা খরচ করে তোমাদেরকে পাঠানোর কিবা প্রয়োজন ছিল?এই গভীর মর্মস্পর্শী ঘটনা ভিড়ে ঠাসা দর্শকদের দারুন ভাবে নারা দেয়।অভিনয় শশধরের ভূমিকায় যথাযথ কানাইয়া লাল সাহা। মায়েরভূমিকায় শিউলি ঘোষ (দাস) এর অভাবনীয় অভিনয়ে উপস্থিত নাট্য প্রেমী দর্শকদের মন কেড়ে নিয়েছে দর্শকেরা।অন্যান্যদের মধ্যে অভিনয় দক্ষতার স্বাক্ষর রেখেছেন যথাক্রমে গৌরাঙ্গ সাহা অভিষেক ভট্টাচার্য কেয়া দাস কল্লোল চক্রবর্তী অতিথিশালাএই নাটকের অসাধারণ মঞ্চসজ্জার ফলে নাট্য কর্মী নন্দ কুমার ঘোষকে সবাই বাহবা জানিয়েছে। আবহসংগীত এর সাগর দাস, অঙ্গ সজ্জায় প্রদ্যুৎ তালুকদার,নাটক শিশির কুমার দাস।সম্পাদনায় ও নির্দেশনায় নাট্য ব্যক্তিত্ব নরেন্দ্র নারায়ণ চক্রবর্তী।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *