May 28, 2024

কালিয়াগঞ্জের পার্বতী সুন্দরী কমলা সেজে শিক্ষক দিবসে ঘোমটা দিয়ে খেমটার নাচনে চারিদিকে নিন্দার ঘূর্ণিঝড়।

1 min read

কালিয়াগঞ্জের পার্বতী সুন্দরী কমলা সেজে শিক্ষক দিবসে ঘোমটা দিয়ে খেমটার নাচনে চারিদিকে নিন্দার ঘূর্ণিঝড়।

তন্ময় চক্রবর্তী  শিক্ষা, শিক্ষক, শিক্ষার আঙ্গিনা বিদ্যালয় এবং শিক্ষার্থী এই চারটি পিলার দ্বারা সীমাবদ্ধ স্থানে প্রতি বছর বিশেষ উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে পালিত হয়ে আসছে ভারতের প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি ডঃ সর্বপল্লী রাধাকৃষ্ণণ এর জন্মদিন উপলক্ষে মহান শিক্ষক দিবস। এই দিনে প্রতিটি শিক্ষাঙ্গনে শিক্ষার্থীরা এবং শিক্ষকরা একত্রিত হয়ে ডঃ সর্বপল্লী রাধাকৃষ্ণণ এর প্রতিকৃতিতে মাল্যদান, পুষ্পাঞ্জলি অর্পণ করে সাড়ম্বরে শিক্ষক দিবস পালন করেন এবং সুস্থ সংস্কৃতিতে সঙ্গীতানুষ্ঠান, আবৃত্তি, নৃত্য পরিবেশন ইত্যাদির আয়োজন করা হয়। মহিলার নামকরনে কালিয়াগঞ্জে দূটি ঐতিহ্যবাহী উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠিত এবং হয়তো তদানীন্তন যে দুই মহিলার নামকরনে এই দুটি উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠিত সেই দুই মহিলা হয়তো দেখতে ভীষণ সুন্দরী ছিলেন বলেই ঐতিহ্যবাহী দুটি বিদ্যালয়ের নামকরণ হয় কালিয়াগঞ্জ সরলা সুন্দরী উচ্চ বিদ্যালয় এবং কালিয়াগঞ্জ পার্বতী সুন্দরী উচ্চ বিদ্যালয়।

 

সেই শিক্ষক দিবস ৫ সেপ্টেম্বর। মনে আছে কিনা অনেকের কয়েকবছর আগে এই মহান দিবস উদযাপন করতে গিয়ে উশৃঙ্খলতার জন্য খবরের শিরোনামে উঠে আসে সরলা সুন্দরী, তেমনি ২০২২ এর ৫ সেপ্টেম্বর মহান শিক্ষক দিবস কে কালিমালিপ্ত করে ভাইরাল করলো কালিয়াগঞ্জ পার্বতী সুন্দরী উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্ররা এবং সহযোগী হিসেবে পাশে থেকে কালিমালিপ্ত করতে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিলেন পার্বতী সুন্দরীর শিক্ষক থেকে পরিচালন কমিটি। এমনিতেই পশ্চিমবঙ্গে শিক্ষার স্বার্থে শিক্ষক নিয়োগে শিক্ষক যেখানে পণ্য হয়েছে, শিক্ষামন্ত্রী যেখানে জেলহাজতে এবং শিক্ষাঙ্গনে পার্থ – অর্পিতা যেখানে ব্রান্ড সেখানে ডঃ সর্বপল্লী রাধাকৃষ্ণণ এর জন্মদিনে শিক্ষক দিবসে সুস্থ সংস্কৃতির আশা কেউ করতে পারে কিনা সন্দেহ আছে। আর এই সন্দেহ কে বাস্তবে বাস্তবতার রূপ দিয়ে ভাইরাল করলো কালিয়াগঞ্জ পার্বতী সুন্দরী উচ্চ বিদ্যালয়। এমনিতেই পার্বতী দেবী সুন্দরী ছিলেন তথাপিও তাঁকে মেনকা সাজিয়ে মাথায় ঘোমটা পরিয়ে যে খেমটার চটুল নাচ পরিবেশিত হলো কালিয়াগঞ্জ পার্বতী সুন্দরী উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক দিবসের মঞ্চে তা এককথায় অকল্পনীয়। আর এই খেমটার চটুল উন্মাদ নাচনের ভাইরাল ঘুর্নিঝড়ে চারিদিকে নিন্দা আর নিন্দা।

 

ঐতিহ্যবাহী একটি বহু প্রাচীন শিক্ষাঙ্গনে শিক্ষকদের উপস্থিতিতে এমন ধরনের অপসংস্কৃতি, উন্মাদ নৃত্য একটি বিশেষ দিনে হতে পারে বলে কোনো অভিভাবক থেকে শুরু করে কেউ বিশ্বাস করতে পারছেন না , আর সোশ্যাল মিডিয়ায় এই ভাইরাল হয়ে যাওয়া দৃশ্য সত্যি করেই পশ্চিমবঙ্গে শিক্ষাঙ্গনের মানচিত্রে” পার্থ অর্পিতা ” ব্রান্ড কে জাস্টিফাই করার পক্ষে যথেষ্ট। বিষয় সম্পর্কিত ঘটনা প্রসঙ্গে বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের কাছে জানতে চাওয়া হলে সংবাদ মাধ্যম কে বিদ্যালয়ে প্রবেশ করতে দেওয়া হয় নি। পরীক্ষা চলছে বলে গেটে তালা ঝুলিয়ে রাখা হয়। বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের অনুপস্থিতিতে পার্বতী সুন্দরীর সহকারী প্রধান শিক্ষক অশোক কুন্ডু সংবাদ মাধ্যমের সামনে স্পিকটু নট এবং ঘটনা প্রাসঙ্গিকতা এড়িয়ে গিয়ে বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ কে এই প্রশ্নের উত্তর দিতেই তাঁর ঘাম ছুটে যায় এবং তিনি কোনোরকমে গা ঢাকা দেন।

শিক্ষক দিবসের দিনে বিদ্যালয়ের শিক্ষক দের সামনে” মেনোকা মাথায় দিল ঘোমটা ” এই সঙ্গীতের তালে উন্মাদ নৃত্যে চটুল নাচে যেমন মহান শিক্ষক দিবসের মঞ্চ কে কলুষিত করেছিল তেমনি বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক অশোক কুন্ডু বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ কে সাংবাদিকদের এই প্রশ্নের উত্তর না দিয়ে গা ঢাকা দিয়ে সরে গেলেন তাঁর এই আচরণ এটাও পার্বতী সুন্দরী কে কালিমালিপ্ত করেছে। এই ঘটনা প্রসঙ্গে কালিয়াগঞ্জ ২ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর রথীন্দ্রনাথ গুহ কে প্রশ্ন করলে তিনি বলেন ঐতিহ্যবাহী এই বিদ্যালয়ের প্রাক্তন ছাত্র হিসেবে আজ ভীষণ লজ্জিত এবং কাউন্সিলর হিসেবে মাথা নিচু হয়ে গেল। এমন অপসংস্কৃতির পীঠস্থান হয়ে উঠবে পার্বতী সুন্দরী এমনকি কমলা সেজে ঘোমটায় খেমটার নাচন ভাইরাল হয়ে যাওয়া দৃশ্যে তিনিও হতচকিত। কালিয়াগঞ্জ পৌরসভার পৌরপতি রামনিবাস সাহা প্রতিবাদ করে বলেছেন এমন ঘটনার পুনরাবৃত্তি তিনি আর চান না। এ এক লজ্জা, কালিয়াগঞ্জের লজ্জা, শিক্ষাঙ্গনের লজ্জা। এমন ঘটনায় কালিয়াগঞ্জের আপামর জনসাধারণ, শিক্ষকমহল বাকরুদ্ধ। কালিয়াগঞ্জ পৌরসভার কাউন্সিলর গৌরাঙ্গ দাস বলেছেন কিছু বলবার ভাষা নেই। শিক্ষকদের উপস্থিতিতে একটি ঐতিহ্যবাহী বিদ্যালয়ে এমন ঘটনায় অবাক হওয়ার কিছুই নেই কারণ যে রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রীর এই হাল, শিক্ষক নিয়োগ যেখানে পণ্য সেখানে ঘোমটার নিচে খেমটা আর কি। এদিকে কালিয়াগঞ্জ পার্বতী সুন্দরী উচ্চ বিদ্যালয়ের পরিচালন সমিতির সভাপতি নিরঞ্জন সাহা ওরফে বাপ্পা সাহার নেতৃত্বে বিদ্যালয়ের পরিবেশ তলানিতে গিয়ে ঠেকেছে এই মহান দিবসে চটুল উদ্দাম নৃত্যের অপসংস্কৃতি তার প্রমান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *