December 9, 2022

জেলার গ্রামীণ এলাকায় পরিশ্রুত পানীয় জল সরবরাহের জন্য ২৭টি প্রকল্পের কাজ চলছে উত্তর দিনাজপুরে

1 min read

তন্ময় চক্রবত্তী ঃ- গ্রামীণ এলাকার বাসিন্দাদের পরিশ্রুত পানীয় জল সরবরাহের জন্য  উত্তর দিনাজপুর জেলার জনস্বাস্থ্য কারিগরি দপ্তর (পিএইচই) ২০ কোটি টাকা বরাদ্দ করেছে।ওই টাকায় জেলার বিভিন্ন ব্লকে মোট ২৭টি পানীয় জলের প্রকল্পের কাজ শেষ করা হবে


পিএইচই উত্তর দিনাজপুরের নির্বাহী বাস্তুকার ঋতম ভট্টাচার্য বলেন, জেলার গ্রামীণ এলাকায় পরিশ্রুত পানীয় জল সরবরাহের জন্য ২৭টি প্রকল্পের কাজ চলছে। এজন্য গত দুমাসে মোট ২০ কোটি টাকা আমরা পেয়েছি। সেই টাকা দিয়েই কাজ চলছে। পাশাপাশি সৌর বিদ্যুতের মাধ্যমে পাম্প চালিয়ে ভূগর্ভস্থ জল তুলে তা সরবরাহ করার জন্য প্রকল্প হাতে নেওয়া হয়েছে।


উত্তর দিনাজপুর জেলায় এখনও পর্যন্ত মাত্র ২০.০৮ শতাংশ গ্রামীণ মানুষ পিএইচই পরিশ্রুত জল পরিষেবার আওতায় রয়েছে। বর্তমানে ৫৩টি প্রকল্পের মাধ্যমে তারা পানীয় জল পায়। জেলার বেশিরভাগ গ্রামীণ এলাকা এখনও পরিশ্রুত পানীয় জলের আওতায় আসেনি। এই পরিস্থিতিতেই পিএইচই জল সরবরাহ প্রকল্পের কাজ শুরু করেছে। এই প্রকল্পে পাম্পের সাহায্যে মাটির নীচ থেকে তুলে তা ওভারহেড ট্যাঙ্কে সংরক্ষণ করা হবে। পরে পাইপ লাইনের মাধ্যমে সেই জল সরবরাহ করা হবে। 

দপ্তরের দাবি, প্রকল্পের কাজ শেষ হলে জেলার আরও .৭৫ শতাংশ গ্রামীণ এলাকার মানুষ পরিশ্রুত পানীয় জলের সুযোগ পাবে। এছাড়াও টি ব্লকে সৌর বিদ্যু চালিত ডুয়াল পাম্প পাইপড ওয়াটার সাপ্লাই স্কিমে কাজ শুরু হয়েছে। এর মাধ্যমেও কিছু গ্রামীণ মানুষ পরিশ্রুত পানীয় জল পাবেপিএইচই সূত্রে আরও জানা গিয়েছে।জেলার গ্রামগঞ্জের বহু মানুষ পরিশ্রুত পানীয় জলের পরিষেবা পাবেন  কাজগুলি শেষ হলে

মোট ৫৩টি এধরনের প্রকল্পের মাধ্যমে পিএইচই জল সরবরাহ করছে  এখন জেলায় ।নতুন ২৭টি প্রকল্পের মধ্যে দুটি প্রকল্পের কাজ চলতি মাসের মধ্যেই শেষ হয়ে যাবে। বাকি ২৫টির কাজ আগামী সেপ্টেম্বর মাসের মধ্যে শেষ করার লক্ষ্য নেওয়া হয়েছে  

পিএইচই জেলায় ২৫টি জায়গায় সৌরশক্তি চালিত ডুয়াল পাম্প পাইপড ওয়াটার সাপ্লাই স্কিমে কাজ শুরু করেছে। একাজটি শেষ হলে জেলার টি ব্লকের ২৫টি জায়গায় সৌরশক্তির সাহায্যে পাম্প চালিয়ে মাটির নীচ থেকে জল তুলে তা সরবরাহ করা সম্ভব হবে। এর অধিকাংশটাই মার্চ মাসের মধ্যে পিএইচই শেষ করার লক্ষ্য নিয়েছে। 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *