December 9, 2022

জিএসটি কর ব্যাবস্থা নতুন ভাবে কমসংস্থানের পথ দেখাবে জানলেন কালিয়াগঞ্জ কলেজের অধক্ষ্য

1 min read
পিয়া গুপ্তা  ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর নেতৃত্বে কেন্দ্রীয় সরকার দেশ জুড়ে চালু হয়েছে জিএসটি কর ব্যাবস্থা। এবার সেই জিএসটি কর ব্যাবস্থা কে সামনে রেখে  আগামী দিনে স্কুল কলেজের ছাত্র ছাত্রীদের নতুন করে এই কর ব্যাবস্থা অন লাইনের মাধ্যেমে শিখে আগামী দিনে উজ্জল ভবিষ্যত গড়ার ডাক দিন উত্তর দিনাজপুর জেলার কালিয়াগঞ্জ রবীন্দ্রনাথ জাতীয় যুব কম্পিউটার কেন্দ্রে।এবার তাদের।উদ্দ্যেগে কালিয়াগঞ্জ কলেজে জিএসটির উপর একটি আলোচনা চক্ত অনুষ্টিত হল।যেখানে আলোচনা করা হয় এই কর ব্যাবস্থা কে সামনে রেখে হাতে কলমে শিখে আগামী দিনে স্কুল কলেজের ছাত্র ছাত্রীরা  কিভাবে নিজেরা স্বনির্ভর  হয়ে নিজের পায়ে দাড়াতে পারে।
কালিয়াগঞ্জ মহা বিদ্যালয়ের অধ্যক্ষ্য ডঃপিযুষ কুমার দাস  ছবি,,শঙ্কর গুপ্তা       
 আজ এই আলোচানা চক্তের উদ্বোধন করে  কালিয়াগঞ্জ মহা বিদ্যালয়ের অধ্যক্ষ্য ডঃপিযুষ কুমার দাসবলেন যুগের সঙ্গে তাল মিলিয়ে সবাই কে চলতে হবে শুধুমাত্র প্রথাগত শিক্ষা শিখলেই আজকের দিনে চাকরি পাওয়া যাবে তার কোন নিশ্চয়তা নেই তাই প্রথাগত শিক্ষার বাইরে গিয়ে যদি আজকের নেটের যুগে হাতে কলমে যদি কিছু শিক্ষা অজন করা যায় তবেই আগামী দিনে তাদের সামনে অনেক পথ খুলে যাবে নিজের পায়ে দাড়ানোর জন্য।
 অধক্ষ্য বলেন কেন্দ্রীয় সরকার জিএসটি  ব্যাবস্থা চালু করলেও আজকের দিনে সেই কর  ব্যাবস্থা কে ইন্টারনেটের ই ফাইলিং এর মাধ্যেমে অনেকেই করতে পারেন না।তাই আগামী দিনে যদি ছাত্র ছাত্রীরা জিএসটি পরিষেবা টা কম্পিউটার এর মাধ্যেমে শখে যায় তাহলে আগামীদিনে এর থেকে অনেকটাই স্বনিভর হতে  পারবে। 
এদিনে আলোচনা চক্তে অংশ নিতে এসে কলকাতা থেকে আগত জিএসটি প্রযুক্তি বিশারত মানস মজুমদার বলেন, কেন্দ্রীয় সরকার সারা দেশ এক ই কর ব্যাবস্থা চালু করার জন্য জি এস টি কর ব্যাবস্থা চালু করেছে। কিন্তু এই কর ব্যাবস্থা চালু হলেও এখন ও পযন্ত ই ফাইলিং এর মাধ্যেমে অনেকেই এই  কাজটা করতে পারে না। ফলে খুব ই সমস্যা দেখা দেয়। তাই আগামী দিনে ছাত্র ছাত্রীরা যদি জিএসটির ই ফাইলিং টা শিখে নিতে পারে তাহলে তাদের সামনে উজ্জল ভবিষ্যত অপেক্ষা করছে। 
কালিয়াগঞ্জ কলেজে জিএসটির উপর একটি আলোচনা চক্ত    ছবি,,শঙ্কর গুপ্তা    
    
 তাই তিনি আবেদন করেন স্কুল কলেজের ছাত্র ছাত্রীরা অযথা পড়া শুনা  শিখে বাড়িতে বসে না থেকে এই জিএসটি পরিষেবা টা শিখে নেয় তাহলে আগামী দিনে তাদের সামনে অনেক পথ খুলে যাবে নিজের পায়ে দাড়াতে। মানস বাবু বলেন এই জন্য তারা কলকাতায় শুধু বসে থেকে নয় কলকাতার বাইরে গিয়ে এই ধরনের কোস করাচ্ছে। তিনি বলেন ইতিমধ্যে পশ্চিমবঙ্গের জেলায় গিয়ে তারা স্কুল কলেজের।
কলকাতা থেকে আগত জিএসটি প্রযুক্তি বিশারত মানস মজুমদার  ছবি,,শঙ্কর গুপ্তা 
 ছাত্রছাত্রীদের সচেতন করে তাদের এই ব্যাপারে একটি কম্পিউটার যুব কেন্দ্র এর কালিয়াগঞ্জ শাখায় ডাইরেক্টর সোমনাথ ভৌমিক জানান, ইতিমধ্যে জিএসটি পরিষেবা নিয়ে ছাত্র ছাত্রীদের মধ্যে শেখার প্রবনতা বেড়ে গেছে।প্রচুর স্কুল কলেজের ছাত্র ছাত্রীদের তাদের শাখায় আসছেন এদিকে কালিয়াগঞ্জ কলেজের জিএসটি নিয়ে আলোচনা চক্রে কলেজের ছাত্র ছাত্রীদের মধ্যে উৎসাহ ছিল চোখে পড়ার মতো।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *