December 4, 2022

কাঁটা তারের বেড়ার মাঝে আজ দুই বাংলার মিলন মেলা উত্তর দিনাজপুরে ।

1 min read
পিয়া গুপ্তা  উত্তর দিনাজপুর প্রতি বছরের মতো এবারো নববর্ষ উপলক্ষে দুই সীমান্তের কাঁটাতারের এপার-ওপারে আত্মীয়-স্বজনদের সাথে কয়েক মুহূর্ত সময় কাটানো আর সুখ-দুঃখের খবর নেয়ার জন্য লাখো মানুষ ছুটে এসেছিলেনউত্তর দিনাজপুর জেলার গোয়ালপোখর এক নম্বর ব্লক ভারত-বাংলাদেশ সীমান্ত অঞ্চল কাঁটা তারের বেডার মাঝে।দুই দেশের ভাষা বাংলা হলেও মাঝে আছে শুধু কাটাতারের বেড়া ।

 কিন্তু হৃদয়ের বন্ধন ছিন্ন হয়নি একটুকো । এপার বাংলার-ওপার বাংলার মানুষের মধ্যে যে অটুট বন্ধন তা আজ আর একবার প্রমাণ হল।এদিন রবিবার সকাল সাড়ে ১০টায় এই মিলনের কথা থাকলেও ভোর বেলা থেকে ছুটে আসতে থাকেন সাধারণ মানুষ। কেউ কেউ আগের দিন এসে আত্মীয়-স্বজনের বাড়িতে অপেক্ষা করছেন। এই অপেক্ষার চোখগুলোতে ভাসতে থাকে অনেকদিন আগে চলে যাওয়া নিজের আত্মীয়-স্বজনের মুখ। সকাল সাড়ে দশটায় এক পলক দেখা করার অনুমতি মেলে তাদের। হুমড়ি খেয়ে পড়ে সবাই। স্বজনকে খুঁজতে থাকেন তারা।উত্তর দিনাজপুর জেলার গোয়ালপোখর এক নম্বর ব্লক ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তে এই মেলাকে কেন্দ্র করে দেখা যায় হাজার হাজার মানুষ কাঁটা তারের দু’পাশে জড়ো হয়েছেন। 

অনেক বছর পর আপন জনকে দেখতে পেয়ে অনেকেই চোখের জলে ভাসালেন।মানববন্ধনে মিলন মেলায় আসা বক্তারা বলেন, এই এলাকার লাখো মানুষের স্বজন ওপার বাংলায় রয়েছে। উত্তরবঙ্গের বিভিন্ন জেলা থেকে সাধারণ মানুষ তাদের স্বজনদের সাথে এক পলক দেখা করার জন্য এখানে ছুটে আসেন। এদিন এই মানববন্ধনে কয়েকশ’ মানুষ অংশ নেয়। এদিন মুহূর্তে দুই সীমান্ত দুই বাংলার মহামিলন মেলায় পরিণত হয়। এদিনে এই মিলন মেলায় আসা মানুষ গুলি জানান এই একটি দিনের জন্য অপেক্ষায় থাকি। এই দিনে আমাদের পরিজন কে  একপলক দেখতে পাই। এখানে যদি একটি সীমান্ত হাট হয় তবে প্রায়ই আত্মীয় স্বজন দের সাথে দেখা করতে পারবো। টাকা পয়সাতো নেই যে পাসপোর্ট ভিসা করে যাবো। এ সময় কাঁটা তারের বেড়ার ফাঁকা দিয়েই প্রিয় স্বজনদের এক পলক দেখে আবেগে আপ্লুত হয়ে পড়েন অনেকেই।

পুড়ো সীমান্তে এক আবেগঘন পরিবেশের সৃষ্টি হয়। কেউ কেউ স্বজনদের হাত ছুঁয়ে দেখার চেষ্টা করেন। কেউ কেউ স্বজনদের জন্য আনা উপহার সামগ্রী বিনিময় করে। আত্মীয়-স্বজন না থাকলেও মিলনমেলার মহোৎসব দেখতে আসে তরুণ প্রজন্মের ছেলে মেয়েরাও। বাঙ্গালীর পুরোন বছরকে বিদায় জানিয়ে নতুন বছর কে বরণ করতে ব্যাস্ত আপাময় বাঙালী। আর এই  বাংলা শুভ নববর্ষের দিনে মিলন মেলার আয়োজন করা  হল দুই বাংলার মানুষের।   উত্তর দিনাজপুর জেলার গোয়ালপোখর এক নম্বর ব্লক ভারত-বাংলাদেশ সীমান্ত অঞ্চল। এদিন এপার ও ওপার বাংলার মানুষের মধ্যে ভালোবাসার আদান প্রদানে  নানান মিষ্টি সহ ছিল বাাংলাদেশের জনপ্রিয় ইলিশ মাছ।সব মিলিয়ে আজকের এই মিলন মেলা ঘিরে এলাকাবাসীর উত্তেজনা ছিল চোখে পড়ার মতো। এদিনের মিলন মেলায় কোন প্রীতিকর ঘটনা না ঘটে সেই কারনে পুলিশ প্রশাসন ও বি এস এফের তরফ বিশেষ নজর দারি রাখা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *