December 7, 2022

দিনহাটা শহর থেকে ১০ কিলোমিটার দূরে সাহেবগঞ্জের কাছে অবস্থিত ত্রিমোহিনী এলাকায় পিকনিক স্পট গড়ে তুলতে উদ্যোগী বনউন্নয়ন নিগম

1 min read

কোচবিহার থেকে শুভদীপ চক্রবর্তী:-  দিনহাটা শহর থেকে ১০ কিলোমিটার দূরে সাহেবগঞ্জের কাছে অবস্থিত ত্রিমোহিনী এলাকায়  পিকনিক স্পট গড়ে তুলতে উদ্যোগী বনউন্নয়ন নিগম ।   প্রায় ১০ বিঘা এলাকা জুড়ে রয়েছে সাত টি পুকুর এবং তার পাশ দিয়ে ঘেরা বাহারি গাছ অনেকেই  ছুটি কাটাতে  আসেন এখানে । দিনহাটার আশেপাশে কোনো পিকনিক স্পট না থাকলেও আছে রাজ আমলের ইতিহাসের চিনহ গোশানী মারী রাজপাট , সেখানে নেই কোনো পিকনিক বা বন ভোজনের বন্দোবস্ত । ফলে  প্রতিবছরই দিনহাটা থেকে অনেকেই  পিকনিক করতে দিনহাটা মহকুমার  বাইরে যান । কেউ বা রায়মাটাং আবার কেউবা লাল ঝামেলা বস্তি ।  যাতায়াতের খরচও যেমন লাগে তেমনি সময় লাগে অনেকটাই । তাই এই ত্রিমোহীনি পিকনিক স্পটটি চালু হলে সমস্যা  অনেকটাই মিটবে বলে আশা করছেন অনেকেই ।  রাজ্য বন উন্নয়ন নিগম সুত্রে জানা গেছে , সম্প্রতি কলকাতায় রাজ্য বন উন্নয়ন নিগমের অফিসে অনুষ্ঠিত হওয়া এক পরিচালন কমিটির বোর্ড মিটিং এ এই সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়েছে বলে জানা গেছে । ইতিমধ্যেই প্রথম পর্যায়ের কাজের জন্য প্রায় ৪০ লক্ষ টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে বলে নিগম সুত্রে জানাগেছে । তবে এই প্রকল্পটির মোট ব্যয় প্রায় ১ কোটি  টাকার ওপরে বলে সুত্রে জানা গেছে । সব ঠিকঠাক থাকলে আগামী এক বছরের মধ্যে এই পিকনিক স্পট তৈরির কাজ সম্পুর্ন করে বন ভোজন কারীদের জন্যে খুলে দেওয়া হবে বলে নিগম সুত্রে জানা গেছে । ত্রিমোহনী এই জায়গার একটি বিশেষত্ব রয়েছে , একসাথে সাতটি পুকুর রয়েছে যা উত্তরবঙ্গে কোথাও নেই ।সম্পুর্ন কাজ শেষ হয়ে গেলে এখানে সাতটি পুকুরে মাছ চাষের মধ্য দিয়ে ঐ এলাকায় কর্মসংস্থান বারবে বলে আশা করছেন নিগমের কর্মকর্তারা । জানাগেছে ,এখানে  পানীয় জল থেকে শুরু করে রান্না করার জন্যে ঘর , আধুনিক মানের শৌচাগার  থাকছে এই ত্রিমোহনী তে বলে জানা গেছে । এ প্রসঙ্গে রাজ্য বন উন্নয়ন নিগমের চেয়ারম্যান তথা দিনহাটার বিধায়ক উদয়ন গুহ  বলেন , দিনহাটা শহর থেকে কিছুটা দূরে একটি জায়গা রয়েছে  সেখানকার প্রাকৃতিক পরিবেশ বেশ আরামদায়ক । সেখানকার পরিকাঠামো কে আরও উন্নত করে সেখানে একটি পিকনিক স্পট গড়ে তোলার সিদ্ধান্ত নেওয়া হপ্যেছে । ইতিমধ্যেই প্রথম পর্যায়ের কাজ শুরু করার জন্যে ৪০ লক্ষ টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে বলে তিনি জানান । দিনহাটার পর্যটন প্রেমীরা অনেকেই বলেন ,  খুবই ভাল উদ্যোগ । এর ফলে দিনহাটার মানুষের সুবিধা হবে পিকনিক করতে দিনহাটা মহকুমার বাইরে যেতে হবে না । 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *