December 4, 2022

মালদা শহরে তিনটি মোবাইলের শোরুমে দুঃসাহসিক চুরি।

1 min read
বিশ্বজিৎ মন্ডল, মালদা : মালদা শহরের বুকে দুঃসাহসিক চুরি।সাটার ভেঙে পরপর তিনটি মোবাইলের দোকানে চুরির ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে শহর জুড়ে।ঘটনায় প্রশ্ন উঠেছে পুলিশের ভূমিকা নিয়েও।মালদা শহরের ব্যস্ততম জনবহুল সুকান্ত মোড় এলাকায় এমন ঘটনায় আতঙ্কিত এলাকাবাসী।তিনটি মোবাইল শোরুমের সাটার ভেঙে প্রায় ১৭ লক্ষ টাকার নামি দামী কোম্পানির মোবাইলের হ্যান্ডসেট নিয়ে চম্পট দিয়েছে চোরের দল।ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে ইংরেজবাজার থানার পুলিশ।খতিয়ে দেখা হচ্ছে দোকানে লাগানো সিসিটিভি ফুটেজও।
স্থানীয় সূত্রে জানাগেছে, শহরের সুকান্ত মোড় এলাকায় অবস্থিত রয়েছে বেশ কয়েকটি মোবাইলের দোকান।একটি দোকানের মালিক দেবজিৎ বোস।বুধবার সকালে স্থানীয়দের নজরে আসে তার দোকানের তালা ও সাটার ভাঙা।তারপরই নজরে আসে পরপর তিনটি দোকানের একই অবস্থা।সাটার ভেঙে দোকানে চুরি হওয়ার খবর পেয়ে ছুটে আসে দোকান মালিক দেবজিৎ বোস ও অপু পাল।কোনোক্রমে স্থানীয়দের সহায়তায় দোকানের সাটার খুলতেই চোখ উঠে কপালে।কার্যত দোকান সাফ।দোকানে থাকা সমস্ত নামিদামি মোবাইল নিয়ে চম্পট দিয়েছে চোরের দল।ঘটনার কথা এলাকায় চৌড় হতেই চাঞ্চল্য ছড়াই।তিনটি দোকান মিলে প্রায় ১৭ লক্ষ টাকার বেশি মোবাইল চুরি গেছে বলে জানান দোকান মালিকেরা।
ঘটনা প্রসঙ্গে একটি দোকানের মালিক দেবজিৎ বোস জানান,”স্থানীয়রা আমায় ফোন করে বলে দোকানে চুরির কথা।তারপরই ছুটে এসে দেখি সব সাটার ভাঙা।দোকানের ভেতরের সবই ফাঁকা।পাশাপাশি তিনটি দোকানে চুরি হয়েছে।এলাকারই কেউ জড়িত আছে ঘটনার সাথে।স্থানীয়দের মুখে শুনলাম রাতে বেশ কয়েকজন ভ্যানে করে সবল নিয়ে যেতে এলাকায় দেখেছেন এলাকার মানুষ।প্লান মাফিক ঘটনার বাস্তব রূপ দেওয়া হয়েছে।পুলিশ এসেছিলেন তার দেখেছেন।আগের দিনের দোকানের সিসিটিভি ফুটেজ দেখা হচ্ছে।এদিকে ঘটনার ঘবর পেয়েই ছুটে আসে ইংরেজবাজার থানার পুলিশ।তিনটি দোকান খতিয়ে দেখেন পুলিশ।সাথে দোকানের সিসিটিভি ফুটেজ দেখার পাশাপাশি ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *