December 4, 2022

মদ খাওয়ার প্রতিবাদ করায় স্ত্রীকে শ্বাসরোধ করে খুনের অভিযোগ উঠলো স্বামীর বিরুদ্ধে

1 min read
বিশ্বজিৎ মন্ডল , মালদা,  মদ খাওয়ার প্রতিবাদ করায় স্ত্রীকে শ্বাসরোধ করে খুনের অভিযোগ উঠলো স্বামীর বিরুদ্ধে । ঘটনায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়ায় মালদার রতুয়া থানার গোপালপুর এলাকায় । ঘটনার পর পলাতক স্বামী ।  জানা যায় রাতুয়ার গোপালপুরের বাসিন্দা অনন্ত মন্ডলের সাথে বিয়ে হয় পার্শবর্তী এলাকা দেবীপুরের শকুন্তলা মন্ডলের সাথে ।

 দুই ছেলে এবং এক মেয়েও রয়েছে এই দম্পতির । কিন্তু বিয়ের কিছু দিন কাটাতে না কাটতেই স্ত্রী শকুন্তলা জানতে পারে স্বামী অনন্ত মদের নেশায় আসক্ত রয়েছে । বার বার বারণ করা সত্ত্বেও মদের নেশা থেকে বেরিয়ে আসতে পারেনি অনন্ত । আর তা নিয়েই চলতো পরিবারে স্বামী স্ত্রীর মধ্যে অশান্তি । অভিযোগ শকুন্তলা তার স্বামীকে মদ খাওয়ায় বাধা দিলেই চলতো অত্যাচার । মাঝে মাঝেই সীমা ছাড়াতো  মারধরের । ফলে জীবন বাঁচাতে আশ্রয় নিতে যেতে হত বাবার বাড়িতে ।

 বৃহস্পতিবার অনন্ত আবারও মদ খেয়ে এলে তার প্রতিবাদ করে স্ত্রী শকুন্তলা । আর প্রতিবাদ করায় ধারালো অস্ত্র দিয়ে খুনের চেষ্টা করে অনন্ত তার স্ত্রীকে । বৃহস্পতিবার কোন রকমে প্রাণে বাঁচলেও শেষ রক্ষা হয়নি শকুন্তলার । শুক্রবার গভীর রাতে শ্বাসরোধ করে ঘরের মধ্যেই খুন করে শকুন্তলাকে স্বামী অনন্ত বলে অভিযোগ । মৃত্যু নিশ্চিত করতে দড়ি দিয়ে ঝুলিয়ে দেওয়া হয়  । ঘটনা প্রসঙ্গে শকুন্তলার ছেলে শুভদীপ জানায় প্রায় প্রতিদিনই মদ খেয়ে বাবা মারধর করত মাকে । গতকাল রাতে আমরা এক সাথেই ঘুমিয়ে ছিলাম । কিন্তু ভোর রাতে দেখি মায়ের মৃত দেহ ঝুলছে । প্রায় প্রতিদিনই মায়ের উপর অত্যাচার চালাতো বাবা বলেও জানায় শুভদীপ । মৃতার দাদা অমল মন্ডল জানান মদ খাওয়ার প্রতিবাদ করায় প্রতিদিনই অশান্তি লেগেই থাকতো বোনের পরিবারে । মদ খাওয়ার প্রতিবাদ করায় খুন করা হয়েছে আমার বোনকে । ঘটনার পর মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মালদা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠায় রতুয়া থানার পুলিশ । তবে ঠিক কি কারণে এই মৃত্যু তানিয়া পুলিশ তদন্ত শুরু করলে স্বামী অনন্ত পলাতক ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *