December 4, 2022

জনদরদী উন্নয়নের মেলায় এ এক ভয়ঙ্কর দোকান

1 min read
জয়ন্ত বোস, বর্তমানের কথা। মেলা  হল একটি সামাজিক, ধর্মীয়, বাণিজ্যিক বা অন্যান্য কারণে একটি স্থানে অনেক মানুষ একত্রিত হওয়ার জায়গা। মেলা বিভিন্ন রকমের হয় । মেলার সঙ্গে গ্রামীণ জনগোষ্টীর কৃষ্টি ও সংস্কৃতির যোগাযোগ নিবিড় । বাংলার এই সংস্কৃতিতে থাকে সব ধর্মের মানুষের সংস্কৃতির সমন্বয় । কয়েকটি গ্রামের মিলিত এলাকায় বা কোন খোলা মাঠে আয়োজন করা হয় মেলার। মেলাকে ঘিরে শহর ও গ্রামীণ জীবনে আসে প্রানচাঞ্চল্য। উপলক্ষ যাই হোক না কেন, বাঙালির সকল উৎসবের মধ্যে একটা সর্বজনীন রূপ আছে। এতে ধর্ম, সম্প্রদায়, জাত-পাত বা ধনী-গরিবের সামাজিক বিভক্তি বাধা হয়ে দাঁড়ায় না। বরং সকল শ্রেণির মধ্যে সেতুবন্ধন রচিত হয়। আর এ কারণেই কালের বিবর্তনের সঙ্গে আনুষ্ঠানিকতার ধরন পাল্টালেও আবহমান বাংলার সামাজিক উৎসব, পার্বণ বা গণমানুষের মেলবন্ধনের ঐতিহ্য-কৃষ্টিগুলো আজও হারিয়ে যায়নি। মেলা মানেই মহামিলন। মানুষের উচ্ছ্বাস-উল্লাসের বহিঃপ্রকাশ ঘটে মেলার মধ্য দিয়ে। ধর্ম-বর্ণ-সম্প্রদায়ের উর্ধে উঠে মেলা মানুষের মধ্যে সম্প্রীতির বন্ধন গড়ে দেয়। গ্রাম-বাংলার মেলা তাই হাজার বছরের ঐতিহ্যের এক মহা সম্মিলন। সংবাদ প্রতিবেদনে প্রকাশিত এই মেলা পশ্চিমবঙ্গের জনদরদী উন্নয়নের মেলা। এই মেলার আয়োজক পশ্চিমবঙ্গ সরকার, শহর থেকে গ্রামাঞ্চলের প্রতিটি স্থানে এই মেলা  সাড়ম্বরে অনুষ্ঠিত হচ্ছেই। জনকল্যাণ মূলক , জনহিতকর সামাজিক বিভিন্ন ধরনের অনেক উন্নয়নের পসরা সাজিয়ে বসেছে প্রচুর দোকান আর এরই ভিতরে এই মেলার আয়োজকদের মধ্যে থেকেই অনেকেই অহংকার, আত্মসাৎ , দাদাগিরির দোকান সাজিয়ে বসে পরেছেন। সকল ঋতুর সাথে প্রতিনিয়ত শহর ও গ্রামের এই উন্নয়নের মেলায় আত্মসাৎ, অহংকার, দাদাগিরি দোকানদারদের আচার, ব্যবহার,, ঔদ্ধত্য,জোড়জুলুমে অতিষ্ঠ উন্নয়নের মেলায় ও মেলা বেষ্টিত এলাকার জনগণের। সর্বদাই জনদরদী উন্নয়নমুখী মেলার ভাবমূর্তি নষ্ট হচ্ছে আর  ধীরে ধীরে ক্যান্সার রোগের মতো জনদরদী উন্নয়নের তকমা কে খেয়ে ফেলতে শুরু করেছে। জনদরদী জনগণের আন্তরিক শ্রদ্ধা, ভালোবাসার মধ্যে  দিয়েই গড়ে উঠে। তারজন্য বিনয়ী , বিনম্র,সততায় মানুষের পাশে থাকা , ন্যায়ের সাথে থেকে অন্যায়ের বিরুদ্ধে প্রতিবাদী হওয়া –এগুলি সবকিছু মিলিয়ে দীর্ঘপথ অতিক্রম করার পরেই জনদরদী নামটি জনগনের অন্তরে প্রতিষ্ঠিত হয়। আর প্রতিষ্ঠত হওয়ার পর যখন জনদরদী উন্নয়নের মেলা বসে আর সেখানে দুইদিনের তৈরী হওয়া আত্মসাৎ, অহংকার, দাদাগিরির মতো দোকান ও দোকানদারদের আধিক্য ঘটতে থাকে তবে জনদরদী উন্নয়ন মেলার জৌলুস নষ্ট হতে থাকে । মেলা কমিটি,মেলার আয়োজক দের এই বিষয়ে অবিলম্বে নজর রাখা প্রয়োজন হয়ে পরেছে নচেত বাংলার মাটিতে বাংলার জনদরদী উন্নয়নের মেলার যথার্থতা আস্তে আস্তে হারিয়ে যেতে না বসে ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *