December 5, 2022

বিপ্লব দেব ত্রিপুরার সম্ভাব্য মুখ্যমন্ত্রী

1 min read

দক্ষিণ ত্রিপুরার উদয়পুরের বাসিন্দা বিপ্লব ত্রিপুরা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতক হয়ে দিল্লি চলেযান সেখানে পড়াশোনার পাশাপাশি আরএসএসএওযোগ দেন বিজেপির উত্তরপূর্ব ভারত অভিযানের ধাক্কায় ত্রিপুরায় আড়াই দশকের সিপিএম শাসন এখন অস্তাচলে। অঙ্ক কষে প্রচার করে, সুনীল দেওধরের মতো নির্বাচনী র্যবেক্ষককে নামিয়ে মানিক সরকারকে গদিচ্যুত করেছে বিজেপি। এখন প্রশ্ন, কে হবেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী?   ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে এখনও র্যন্তযে নামটি উঠে আসছে তিনি হলেন আরএসএসের পুরনো কর্মী রাজ্য বিজেপি সভাপতি বিপ্লব কুমার দেব। প্রাক্তন আরএসএসের এই কর্মী সেই বড় দায়িত্ব নিতেও পিছপা নন। সংবাদ মাধ্যমে বিপ্লব জানিয়েছেন, ‘দল সবকিছু ঠিক করবে। তবে কোনও বড় দায়িত্ব নিতে পিছপা নই।ত্রিপুরায় দলের র্যবেক্ষক সুনীল দেওধরও বিপ্লবের উপরে আস্থাযথেষ্ট আস্থা রয়েছে। দেওধর বলেন, ‘দলের প্রধান হিসেবে তরুণ একটি মুখ খোঁজ করা হচ্ছিল। দিল্লিতে কথা হওয়ার পরই ওকে ত্রিপুরায় আনা হয়দক্ষিণ ত্রিপুরার উদয়পুরের বাসিন্দা বিপ্লব ত্রিপুরা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতক হয়ে দিল্লি চলেযান। সেখানে পড়াশোনার পাশাপাশি < span style="color: black; font-family: Vrinda; font-size: 13.5pt;">আরএসএসএওযোগ দেন। সেখানেই বিপ্লবের সঙ্গে সুনীল দেওধরের পরিচয় হয়। প্রসঙ্গত, এই সুনীল দেওধরই ২০১৪ বারাণসীতে মোদীর নির্বাচনী প্রচারের দায়িত্বে ছিলেন। দেওধরই বিপ্লবকে ত্রিপুরায় পাঠান বিজেপির সংগঠন গড়ার জন্য। পরে তাঁকে দলের সভাপতি করা হয়ত্রিপুরায় এবার প্রচারে বিপ্লবের ছায়াসঙ্গী ছিলেন তাঁর স্ত্রী নীতি। এসবিআইয়ের দিল্লির পার্লামেন্ট হাউস ব্যাঞ্চের ডেপুটি ম্যানেজার নীতি সংবাদ মাধ্যমে জানান, বিজেপির চলো পাল্টাই স্লোগানটাই মানুষকে টেনেছিল। বুঝেছিলাম মানুষের সামনে কোনও বিকল্প নেই বলেই তাঁর সিপিএমে আটকে রয়েছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *