December 3, 2022

পর্যবেক্ষকদের দায়িত্ব নিতে বললেন নির্বাচন কমিশনার ভোট সুষ্ঠুভাবে করাতে

1 min read

রাজ্য নির্বাচন কমিশনার অমরেন্দ্রকুমার সিং সুষ্ঠুভাবে ভোট করাতে পর্যবেক্ষকদের দায়িত্ব নিতে নির্দেশ দিলেন । সেই সঙ্গে তিনি তাঁদের বলেন, আপনারা ৯ এপ্রিলের আগে জেলায় চলে যাবেন। মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার শেষদিন আপনাদের থাকতে হবে। জেলাশাসক ও পুলিস সুপারদের সঙ্গে সমন্বয় রেখে কাজ করবেন। দেখবেন যাতে ভোটপর্ব শান্তিতে মেটে। মনোনয়নপর্ব মিটে যাওয়ার পর ফিরে এলেও আবার ভোটের পাঁচদিন আগে জেলায় জেলায় চলে যেতে হবে। গণনা শেষ করে ফিরতে হবে। 


(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});



২০টি জেলার পর্যবেক্ষকের সঙ্গে বৈঠকের পরে আজ, শনিবার শিশির মঞ্চে ব্লকের পর্যবেক্ষকদের সঙ্গে বৈঠকে বসবেন রাজ্য নির্বাচন কমিশনার। রাজ্যে ৩৪২টি ব্লকের জন্য ১৭০ জন ডব্লুবিসিএস অফিসারকে পর্যবেক্ষক হিসেবে নিয়োগ করেছে কমিশন। যাঁদের গড়ে দু’টি করে ব্লকের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। কমিশনার আগামী সোমবারের মধ্যে প্রতিটি ব্লকে তাঁদের চলে যাওয়ার নির্দেশ দেবেন বলে জানা গিয়েছে। বিডিও এবং এসডিও’র সঙ্গে সমন্বয় রেখে নির্বাচন পরিচালনা করার নির্দেশ দেওয়া হবে বলে কমিশন সূত্রে জানা গিয়েছে। তবে মনোয়নপত্র জমা দেওয়া চললেও এখনও পর্যবেক্ষকরা জেলায় জেলায় না যাওয়ায় ক্ষুব্ধ বিরোধী দলের নেতারা। লোকসভা ও বিধানসভা ভোটে প্রথম দিনেই পর্যবেক্ষকরা জেলায় জেলায় চলে যান।

তবে জেলাগুলিতে ২০ জন পর্যবেক্ষক নিয়োগ করা হয়েছে। তাঁরা সকলেই আইএএস অফিসার। উত্তর ২৪ পরগনার জন্য পর্যবেক্ষক হলেন স্বরাষ্ট্রদপ্তরের কমিশনার দেবাশিস গুহঠাকুরতা। মুর্শিদাবাদের পর্যবেক্ষক হয়েছেন কেইআইআইপি’র প্রজেক্ট ডিরেক্টর যাদব মণ্ডল। মালদহের পর্যবেক্ষক হলেন খাদ্য কমিশনার মশির আলম। পুরুলিয়ার পর্যবেক্ষক কলকাতা পুরসভার বিশেষ কমিশনার তাপস চৌধুরী। হাওড়ার পর্যবেক্ষক স্বরাষ্ট্রদপ্তরের অতিরিক্ত সচিব স্বপন পাল। হুগলির পর্যবেষক হলদিয়া ডেভেলপমেন্ট অথরিটির সিইও উজ্জ্বল সেনগুপ্ত। বীরভূমের পর্যবেক্ষক হলেন পরিবহণ দপ্তরের অতিরিক্ত সচিব রামকৃষ্ণ মাইতি। ওই দপ্তরের কমিশনার রজতকুমার বসুকে পর্যবেক্ষকের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে কোচবিহার জেলায়। বাঁকুড়ার পর্যবেক্ষক হলেন তৃণাঞ্জন চক্রবর্তী। দক্ষিণ ২৪ পরগনার পর্যবেক্ষক ডিরেক্টর অব মাস এডুকেশন সুনরিতা হাজরা। পশ্চিম মেদিনীপুরের পর্যবেক্ষক অচিন্ত্য পাল। হিমাংশজ্যোতি চৌধুরি হলেন ঝাড়গ্রামের পর্যবেক্ষক।
এদিকে, আদালতের নির্দেশের পর পুলিস বেশ তৎপর হয়েছে। শুক্রবার ১৭টি অস্ত্র উদ্ধার হয়েছে। এর মধ্যে আটটি গোসাবা থেকে। প্রতিটি গোলমালে নির্দিষ্ট কেস হবে বলে এডিজি (আইনশৃঙ্খলা) অনুজ শর্মা জানিয়েছেন। তিনি বলেন, সতর্কতামূলকভাবে গ্রেপ্তার করা হয়েছে ১৭৮৮ জনকে। নির্দিষ্ট কেসে গ্রেপ্তার করা হয়েছে ৩০৩ জনকে। বিডিও বা এসডিও অফিসে যাতে জমায়েত না হয়, তার জন্য নির্দেশ পাঠানো হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *