November 25, 2022

দুর্ঘটনা এড়াতে শিক্ষাঙ্গনে পৌছালো মালদা জেলা পুলিশ

1 min read

বিশ্বজিৎ মন্ডল , মালদা : স্কুলে যাওয়ার পথে পারাপার করতে হয় একাধিক সড়ক।এই অবস্থায় বিন্দুমাত্র অসাবধানতায় দুর্ঘটনার বলি হয়ে অকালেই ঝরে গেছে বহু শৈশব।পথ দুর্ঘটনা রুখতে  গাড়ির চালক ও পরিবহন কর্মীদর পর এবার শিক্ষাঙ্গনে পৌছালো মালদা জেলা পুলিশ প্রশাসন।জেলার অন্তর্গত ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়ক লাগুয়া শিক্ষাঙ্গনে পৌছাচ্ছেনা জেলা পুলিশের শীর্ষ কর্তারা।
ছাত্রছাএীদের সড়ক পারাপারের নানান বিষয় বঝাতে এবার পুলিশকর্তারাই শিক্ষকের ভূমিকা পালন করতে শুরু করলেন।স্কুলে স্কুলে গিয়ে পথ নিরাপত্তা বিষয়ে পড়ুয়াদের উদ্দেশ্যে নানান বিষয় তুলে ধরেন ডিএসপি হেড কোয়ার্টার বিপুল মজুমদার।তার সঙ্গে ছিলেন ইংরেজবাজার থানার আইসি পূর্ণেন্দু কুন্ডু সহ জেলার ট্রাফিক পুলিশের কর্তারা।গত ১৫ ই ফেব্রুয়ারি থেকে শুরু হওয়া জেলা পুলিশের এই অভিযান প্রথমে ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়ক লাগুয়া বিদ্যালয় ,কলেজ জুড়ে চলছে লাগাতার পুলিশের সচেতনতা মূলক কর্মসূচি।শনিবার পথ নিরাপত্তার ক্লাস নেওয়া হয়ছে ইংলিশ বাজারের দুটি হাই স্কুলে।যদুপুর হাই স্কুল ও কমলাবাড়ি হাই স্কুল।এই দু’টি স্কুল লাগুয়া রয়েছে ৩৪ নম্বার জাতীয় সড়ক।
৩৪ নম্বার জাতীয় সড়ক ধরে হাজার হাজার পড়ুয়া প্রতিদিন স্কুল কলেজে যাতায়াতের পথ।তাদের জাতীয় সড়কও পারাপার করতে হয়।পুলিশ প্রশাসনের বড় দুশ্চিন্তাটা এখানেই।দুর্ঘটনা এড়ানো সম্ভব কি করে,কীভাবে রাস্তা পার হতে হবে,কর্তব্যরত ট্রাফিক পুলিশ রাস্তা পার হতে নির্দেশ দিলেন কি না,ট্রাফিক সিগন্যালিং সিস্টেমে লাল,সবুজ,হলুদ আলো জ্বললে কী করণীয়,ব্ল্যাকবোর্ডের সামনে দাঁড়িয়ে এইসব বিষয়ই পড়ুয়াদের সামনে তুলে ধরেন ইংরেজবাজার থানার আইসি এবং মালদা জেলা পুলিশের ডেপুটি পুলিশ সুপার বিপুল মজুমদার।খুঁটিনাটি সব কিছুই পুলিশ কর্তাদের প্রশ্ন করে জেনে নিতে পেরেছেন ছাএছাএীরাও।
প্রসঙ্গত, দিন কয়েক আগেই রায়গঞ্জের শিলিগুড়ি মোড়ে ঘটেছিল মর্মান্তিক এক দুর্ঘটনা।তারপরই উত্তপ্ত হয়ে উঠেছিল এলাকা।জনসাধারণের রোষের মুখে পড়তে হয়েছিলো পুলিশকে।স্থানীরা প্রশ্ন তুলেছিলেন পুলিশের ভূমিকা নিয়েও।সেই ঘটনা থেকে শিক্ষা নিয়ে আগাম সচেতনতার উদ্যোগ নেন জেলা পুলিশ সুপার অর্ণব ঘোষ।শুরু হয়েছে পড়ুয়াদের সচেতনতা বৃদ্ধির কর্মসূচি।
 পুলিশ সুপার অর্ণব ঘোষ জানিয়েছেন,সব ক্ষেত্রে চালকদের দোষারোপ করা হয়।কিন্তু সাধারণের অসাবধানতাই দুর্ঘটনা ঘটছে। জেলায় জাতীয় সড়ক ও রাজ্য সড়কের ধারে বা কাছাকাছি যে সব স্কুল রয়েছে সেই সব স্কুলেই জেলা ট্রাফিক পুলিশের তরফে পড়ুয়াদের নিরাপত্তা বিষয়ে সচেতন করার কর্মসূচি নেওয়া হয়েছে।শিক্ষকদেরও কিছু পরামর্শ দেওয়া হয়েছে”।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *