August 17, 2022

১৩ নম্বর ওয়ার্ডে ৭০জনকে চাকরি দেবার জন্য বায়োডাটা নিলেন বেকার যুবকদের মিথ্যা প্রতিশ্রুতি দিয়ে তৃণমূল প্রার্থী?বিস্ফোরক অভিযোগ কংগ্রেসের-

1 min read

১৩ নম্বর ওয়ার্ডে ৭০জনকে চাকরি দেবার জন্য বায়োডাটা নিলেন বেকার যুবকদের মিথ্যা প্রতিশ্রুতি দিয়ে তৃণমূল প্রার্থী?বিস্ফোরক অভিযোগ কংগ্রেসের-

তপন চক্রবর্তী, কালিয়্যাগঞ্জ,১৪ ফেব্রুয়ারি: সোমবার কালিয়াগঞ্জ পৌর ভোটের প্রচারে বক্তব্য রাখতে গিয়ে তৃণমূলের ১৩নম্বর ওয়ার্ডের প্রার্থী ঈশ্বর রজক সম্পর্কে বিস্ফোরক অভিযোগ আনলেন যুব কংগ্রেস নেতা সৌম্য দত্ত।তিনি মহেন্দ্রগঞ্জ বাজারে কংগ্রেসের একটি দলীয় কার্যালয় উদ্বোধনের অনুষ্ঠানে বলেন ১৩ নম্বর ওয়ার্ডের তৃণমূল প্রাথী ঈশ্বর রজক বেকার যুবকদের পৌর সভায় চাকরি দেবার মিথ্যা প্রতিশ্রুতি দিয়ে ৭০ জন বেকার যুবকদের কাছ থেকে তাদের বায়োডাটা সংগ্রহ করেছেন বলে বিস্ফোরক মন্তব্য করেন।কংগ্রেসের যুব নেতা বলেন ভোটে জেতার কোন সম্ভাবনা না দেখতে পেরে ১৩ নম্বর ওয়ার্ডের যুবকদের চাকরির প্রতিশ্রুতি দিয়ে তাদেরকে ভোটের কাজে লাগিয়েছেন।তিনি বলেন যার নিজের চাকরিই থাকছেনা তিনি আবার একটি ওয়ার্ড থেকেই ৭০ জনকে পৌর সভায় চাকরি দেবেন।

যা শুনে শুধু বেকার যুবকরাই হাসছেনা ১৩ নম্বরের বেশ কিছু ঘোরাও এই কথা শুনে হাসছে বলে জানান। যুব কংগ্রেস নেতা সৌম্য দত্ত বলেন যে মানুষটি ১৩ নম্বর ওয়ার্ডের দুই জন মহিলার পেটে লাথি মেরে উপ-পৌর প্রসাশক হয়ে আসার পর চাকরি খেয়েছেন।সেই ব্যক্তি এখন বুঝতে পেরেছে তার জেতার কোন রকম সম্ভাবনা না থাকায় তিনি মানুষদের ভুল বুঝিয়ে এখন ভোটের বৈতরনি পার হবার জন্য খর কুট আঁকড়ে ধরবার চেষ্টা করে যাচ্ছে বলে জানান।তিনি১৩ নম্বরের তৃণমূলের প্রার্থীর মিথ্যা প্রলোভনে কোন ভাবেই পা না দেবার জন্য ভোটার দের সতর্ক করে দেন।

যুব নেতা সৌম্য দত্ত বলেন ১৩ নম্বর ওয়ার্ডের কংগ্রেস প্রাথী সুজিত দত্ত সম্পর্কে বলতে গিয়ে বলেন তাদের কংগ্রেস প্রার্থী সারাটা জীবন ধরে কংগ্রেসের আদর্শকে সামনে রেখে রাজনীতি করে আসছে।সাধারণ মানুষের আপদে বিপদে পাশে থাকে।২৫ বছর কংগ্রেসের পৌর বোর্ড থাকলেও তিনি নিঃস্বার্থ ভাবে সমাজের কাজ করে চলেছেন।তার সততা নিয়ে কোন প্রশ্নই নেই।তাই কংগ্রেস প্রার্থী সুজিত দত্তকে আপনারা আশীর্বাদ দিয়ে জয়যুক্ত করবেন বলেই তার বিশ্বাস।যেকোন কাজে যাকে সবসময় পাওয়া যায় তিনি ১৩ নম্বরের সুজিত দত্ত।

শুধু তাই নয় তার কাকিমা বিগত ৫বছর ধরে ১৩,নম্বরের কাউন্সিলর ছিলেন যিনি ছিলেন প্রচন্ড কাজের মানুষ। তাই এলাকার কাজে তিনিও সহযোগিতা করে যাবেন বলে তিনি প্রতিশ্রুতি দেন।সৌম্য দত্ত বলেন ১৯৯৪সাল থেকে লাগাতার ৫বার কালিয়াগঞ্জ পৌর বোর্ড দখল করে ২০১৫ সালেও কংগ্রেস বোর্ড ক্ষমতা দখল করে প্রয়াত পৌর পিতা অরুণ দে সরকারের নেতৃত্বে।

কিছুদিন হল যাদের কালিয়াগঞ্জ পৌর বোর্ড চালাতে দেখেছেন এরা কংগ্রেসের উপর নির্ভর করে কাকের বাসায় কোকিলের ডিম পেরে আসছিল অবৈধ উপায়ে।তাই যারা নিজেদের ক্ষমতায় পৌর বোর্ড দখল করতে পারেনা তাদের একটিও ভোট দেবেন না। সভায় বক্তব্য রাখেন ১৩ নম্বরের কংগ্রেস প্রার্থী সুজিত দত্ত,কালিয়াগঞ্জ টাউন কংগ্রেস সভাপতি তুলসী জয়সোয়াল এবং প্রাক্তন কাউন্সিলর মঞ্জুরি দত্ত দাম।উপস্থিত ছিলেন কংগ্রেস নেতা প্রভাস সরকার।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published.