August 9, 2022

দরিদ্র অসহায় সকল শ্রেণীর মানুষকে সমান গুরুত্ব দিয়েই রায়গঞ্জের উন্নয়নে দিবারাত্রি কঠোর পরিশ্রম করে চলেছেন রায়গঞ্জের পৌরপতি সন্দীপ বিশ্বাস

1 min read

পিয়া গুপ্তা ,রায়গঞ্জ শুধু কথা দিয়ে নয কাজ করেই যে মানুষের মন জয করা যায় তা স্পষ্ট ভাবেই বুঝিয়ে দিলেন রায়গঞ্জের পৌরপতি সন্দীপ বিশ্বাস ।দরিদ্র অসহায় সকল শ্রেণীর মানুষকেই সমান ভাবে গুরুত্ব দিয়ে তিনি নানান উন্নয়ন মূলক কাজ করে চলেছেন রায়গঞ্জ বাসীর স্বার্থে ।বিপদে-আপদে মানুষের পাশে  দাড়িয়ে যেমন মানবিকতার পরিচয় দিয়েছেন তেমনি উন্নয়নের দিক থেকে রায়গঞ্জ কে তিনি প্রথম সারিতে রেখেছেন।প্রায় 7 মাস আগে মুখ্যমন্ত্রী হাত ধরে রায়গঞ্জের পৌরপতি পদে আধিপত্য বিস্তার করেন রায়গঞ্জের পৌরপতি সন্দীপ বিশ্বাস  ।
পৌরপতি সন্দীপ বিশ্বাস 
রায়গঞ্জের  উন্নয়নে দিবারাত্রি নানান উন্নয়ন মূলক পদক্ষেপ গ্রহণ করে চলেছেন রায়গঞ্জের  পৌরপতি সন্দীপ বাবু।রায়গঞ্জে 42 তম পৌরবোর্ডের এই প্রথম পৌরবোর্ড গঠন করেছে তৃণমূল-কংগ্রেস রায়গঞ্জের উন্নয়নের কাণ্ডারী চেয়ারম্যান সন্দীপ বিশ্বাস এক সাক্ষাত্কারে জানান তারা শুধু কথা না কাজ করে দেখিয়েছেন মানুষকে।     

গত বামফ্রন্ট সরকার ও কংগ্রেস সরকার পরিচালিত বোর্ড  উন্নয়নের সুযোগ পেয়ে যা করতে পারেনি তা এবার রাজ্য সরকারের কাছ থেকে রায়গঞ্জের  উন্নয়নের লক্ষে এক পয়সা ও বাকি না রেখে কাজ করে গেছেন তারা।যা রায়গঞ্জের এর ইতিহাসে এই প্রথম ।তৃনমূল কংগ্রেস পরিচালিত রায়গঞ্জ  পৌরসভার পৌরপতি জানান  স্বাস্থ্য ,শিক্ষা, নিকাষী ব্যাবস্থা, রাস্তাঘাট,রাস্তায় রাস্তায় হাইমাক্স আলো সব কিছু দিয়ে রায়গঞ্জ কে আরো সুসজ্জিত করে তোলার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন তিনি।

রায়গঞ্জের পৌরপতি সন্দীপ বিশ্বাস জানান রাযগঞ্জ বাসীর সুবিধার্থে 17 টি জায়গায় উচ্চবাতী স্তম্ভ বসানো হয়েছে, রায়গঞ্জের বহু অন্ধকারাচ্ছন্ন জায়গা গুলিতে এলেডি লাইটের ব্যাবস্থা করা হয়েছে ।এছাড়া ও হাইমাক্স পোল বসানো হচ্ছে  জায়গায় জায়গায় ।এছাড়া রায়গঞ্জের 27 টি ওয়ার্ড কে পরিচ্ছন্ন রাখতে মশা মাছির আক্রমণ থেকে বাঁচাতে প্রতিনিয়ত বাড়িতে বাড়িতে মশা নিধনের ওষুধ ও স্প্রে করা হচ্ছে ।
এছাড়া ও জলের স্রোত চালু রাখার জন্য বিভিন্ন নর্দমা ও পরিস্কার করা হচ্ছে ।এছাড়া ও শহরকে  নোংরা আবর্জনা থেকে দূরে রাখতে প্রতিটি এলাকায় ডাস্টবিন ব্যবহার করা হচ্ছে ।তাছাড়া রায়গঞ্জ বাসীর সুবিধার্থে খুব শীঘ্রই 1 কোটি 40 লক্ষ টাকা ব্যাযে রায়গঞ্জ বন্দর শ্মশানে একটি বৈদ্যুতিক চুল্লি তৈরির কাজ ও চলছে।পৌরপতি জানান বহু বছর আগে রায়গঞ্জ বাসীর সুবিধার্থে কলকাতা ভবন নির্মিত হয়েছিল ।
যেখানে বহু মানুষ যে কোন কাজে কলকাতা গেলে যাতে সযত্নে বিনামূল্যে থাকতে পারেন তারা ব্যাবস্থা করা হয়েছিল ।কিন্তু কিছু বছর যেতে না যেতেই সেই ভবন টি ভগ্নপ্রায় হয়ে উঠেছিল।পরিকাঠামোর অভাবে ভবনটিতে থাকতে গেলে বহু সমস্যায় ও পড়তে হচ্ছিল সাধারণ মানুষদের।তাদের কথা মাথায় রেখে অবশেষে কলকাতায় অবস্থিত রায়গঞ্জ ভবনটিকে 4 কোটি 4 লক্ষ টাকা ব্যাযে নতুন ভাবে নির্মিত করা হলো।যেখানে বর্তমানে 26 টি ঘর নির্মাণ করা হয়েছে সাধারণ মানুষের থাকার জন্য ।
সন্দীপ বাবু আরো জানান যে প্রতিবছর ১৫ মার্চ থেকে ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত রায়গঞ্জ  শহরের বিদ্রোহী মোড় থেকে শুরু করে মোহনবাটি বাজার পর্যন্ত রাস্তার দুই ধারে অস্থায়ী ভাবে চৈত্র সেলের বাজার বসায় যনযাটের বহু সমস্যা দেখা দিত ।রাস্তা দিয়ে যানচলাচলের পাশাপাশি পায়ে হেঁটে চলাও দুষ্কর হয়ে পড়ত ।তাই রায়গঞ্জ বাসীর সুবিধার্থে  চৈত্র সেলের বাজারকে রায়গঞ্জ স্টেডিয়াম ময়দানে সরিয়ে নিয়ে যাওয়ার উদ্যোগ ও নিযেছেন তিনি।রায়গঞ্জে উন্নয়ন মূলক বহু কাজে তিনি বারবারই ঝাপিযে গিয়েছেন ।মাত্র কয়েক মাসেই শহর কে সৌন্দর্যাযন করতে বহু দৃষ্টান্তমূলক পদক্ষেপ গ্রহণ করে চলেছেন।তার বক্তব্য শহর পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন থাকলে মানুষের মন পরিষ্কার থাকে আর তখনই শহর এক নতুন মাত্রা পায় মানুষের কাছে।রায়গঞ্জের  উন্নয়ন স্বভাবতই খুশির হাওয়া রায়গঞ্জ বাসীর মুখে ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.