August 9, 2022

অভিযোগ নিতে চালু হবে হোয়াটসঅ্যাপ ,শহর পরিচ্ছন্ন রাখতে পুরসভাগুলিকে নির্দেশ রাজ্যের পুর দপ্তরের,

1 min read
তন্ময় চক্রবত্তী ঘুম থেকে পথ নামলেই দেখবে পরিচ্ছন্ন রাস্তা সকালে নাগরিকরা ।শহরে কোথাও পুরানো, নোংরা হয়ে যাওয়া হোর্ডিং দৃশ্যদূষণ ঘটাবে না।   নিকাশি নালা দিয়ে জল গড়াবে বাধাহীনভাবে।মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়  রাজ্যের সর্বত্র পৌর নাগরিকদের এমনটাই দেখাতে চান শুধু তাই নয়,প্রত্যেক নাগরিকের হাতে তুলে দিতে চান নির্দিষ্ট হোয়াটসঅ্যাপ নম্বর পুর
পরিষেবা
নিয়ে অভিযোগ জানাতে  


রাজ্যের প্রতিটি পুরসভার পরিচ্ছন্নতা পুরপরিষেবা নিয়ে মুখ্যমন্ত্রীরআগ্রহের কথা জানিয়ে সম্প্রতি পুর নগরোন্নয়ন দপ্তর নির্দেশিকা পাঠিয়েছে। দফা পরিকল্পনা সহ ওই নির্দেশিকা ইতিমধ্যেই অধিকাংশ জেলায় পৌঁছে গিয়েছে। ওয়াকিবহাল মহল বলছে, অনেক ক্ষেত্রেই স্থানীয় প্রশাসকরা নিজেদের মতো পুরসভা পরিচালনা করে। সাফাই এবং নিকাশি নিয়ে বাসিন্দাদের বিস্তর অভিযোগ থাকে। মুখ্যমন্ত্রীর এই পদক্ষেপ একদিকে যেমন আমজনতার ইচ্ছেপূরণ হবে, তেমনি পুরসভাগুলিও মুখ্যমন্ত্রীর শাসনে বাঁধা পড়বে। রাজ্য পুরপ্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে, গত ২৮ ফেব্রুয়ারি রাজ্যের পুরসচিব ওঙ্কার সিং মিনা রাজ্যের সমস্ত জেলায় পুরসভাগুলিকে পরিচ্ছন্নতা নিশ্চিত করতে নির্দেশিকা পাঠিয়েছেন। ওই নির্দেশিকায় বলা হয়েছে, রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী পরিচ্ছন্নতার শুধু চান তাই নয়, এই খাতে অর্থের সংস্থানও করে দিয়েছেন।

এর ফলে সমস্ত পুরসভাকে পুরনাগরিকদের পরিচ্ছন্ন শহর উপহার দিতে হবে। ওই নির্দেশিকা অনুসারে, অন্তত দিনে দুবার শহরের সমস্ত রাস্তা পরিচ্ছন্ন করতে হবে। প্রধান সড়কগুলি ভোরবেলা সন্ধ্যাবেলা পরিষ্কার করতে হবে। অর্থা সকালে পথে নামলেই মানুষ যেন পরিচ্ছন্নতার বিষয়টি দেখতে পান। প্রত্যেকটি নিকাশি নালাকে সবরকম আর্বজনামুক্ত করতে হবে। মানুষের বাড়ি বাড়ি গিয়ে আবর্জনা সংগ্রহ এবং সংগৃহীত আবর্জনার উপযুক্ত ব্যবস্থা নিশ্চিত করার কড়া নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। নির্দেশিকায় নগরবাসীকে দৃশ্যদূষণ থেকে বাঁচানোর জন্য শহরের ভেতরে কোনও পুরনো ব্যানার হোর্ডিং রাখা যাবে না। সৌন্দর্যায়নের জন্য যে সমস্ত রেলিং তৈরি করা হয়েছে তা প্রত্যেক দিন জল দিয়ে ধুয়ে ঝাঁ চকচকে করে রাখার কথা বলা হয়েছে। এরই সঙ্গে দুটি আরও গুরুত্বপূর্ণ নির্দেশ ওই তালিকাভুক্ত করা হয়েছে। 

নাগরিক স্বার্থে তা খুবই উপযোগী বলে ওয়াকিবহাল মহল মনে করছে। প্রত্যেক পুরসভাকে পরিচ্ছন্নতার সার্বিক কাজের কড়া নজরদারি করতে বলা হয়েছে। এজন্য একজন নোডাল অফিসারও নিয়োগ করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। আর পুরপর
িষেবা
নিয়ে সমস্ত নাগরিক যাতে অভিযোগ জানাতে পারে তার জন্য হোয়াটসঅ্যাপকেব্যবহার করতে বলা হয়েছে। একটি হোয়াটসঅ্যাপ নম্বর তৈরি করে তা সমস্ত মানুষের কাছে পৌঁছে দিতে হবে। ওয়াকিবহাল মহল বলছে, হোয়াটসঅ্যাপ নম্বরে অভিযোগ থাকলে তা রেকর্ডে থেকে যাবে। পুরপ্রশাসন বা মুখ্যমন্ত্রী প্রয়োজনে তা যাচাই করে দেখতেও পারবেন। পুরসচিব নির্দেশিকায় জানিয়েছেন, রাজ্যের সর্বত্র পরিচ্ছন্ন, সবুজ নাগরিকবান্ধব পুরসভা চান মুখ্যমন্ত্রী

Leave a Reply

Your email address will not be published.