September 10, 2022

কুসমুন্ডির নির্ভয়ার সাথে দেখা করতে না দেওয়ায় মুখ্যমন্ত্রীকে নিশানা সেলিমের।

1 min read
বিশ্বজিৎ মন্ডল, মালদা : কুশমন্ডির নির্যাতিতার সঙ্গে দেখা করতে পারলেন না সিপিএম সাংসদ মহঃ সেলিম।মালদা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে দেখা করতে গেলে সিপিএম সাংসদ মহঃ সেলিমকে দেখা করতে না দেওয়ার অভিযোগ পুলিশের বিরুদ্ধে।দীর্ঘক্ষণ প্রতীক্ষার পর ফিরে যেতে বাধ্য হন বাম নেতৃত্ব।শনিবার দুপুরে সাংসদ সেলিম সহ

তার সঙ্গে ছিল বিধায়ক খগেন মুর্মু,জেলা সিপিআইএম সম্পাদক অম্বর মিত্র।মালদা মেডিক্যাল কলেজ চিকিৎসাধীন কুশমন্ডির নির্যাতিতার সাথে দেখা করতে যান।

তবে নির্যতিতার সঙ্গে দেখা করতে না পেরে পুলিশের বিরুদ্ধে এক রাশ ক্ষোভ উগরে দেন বামফ্রন্ট সংসদ মহঃ সেলিম।তিনি বলেন,’আমাদের রাজ্যে এমন ঘটনা নির্ভয়ার ঘটনাকে স্মরণ করিয়ে দিয়েছে।তবে আজ দেখা করতে এসে একটা নতুন জিনিস দেখলাম।ডাক্তার, প্রিন্সিপাল থেকে বেশি পুলিশের অধীনে হাসপাতাল।মুখ্যমন্ত্রীর সরকার এখন ধামাচাপা দিতে ব্যস্ত।এই ঘটনা আমাদের লজ্জা।সপ্তাহ খানেক আগে মুখ্যমন্ত্রী আসছে বলে ব্যস্ত ছিল উত্তরবঙ্গের এই কয়েকটি জেলা।তারই মাঝে এই ঘটনা।তখন পুলিশকে খুঁজে পাওয়া যায়নি।আজ পুলিশ আইন রক্ষা করতে পুলিশ আমাদের রাজ্যে ব্যর্থ,কিন্তু মুখমন্ত্রীর নিরাপত্তা বিঘ্নিত হচ্ছে তা নিয়েই ব্যস্ত পুলিশের কর্তারা।ঘটনায় মুখ্যমন্ত্রী বলছে ঘর দিয়েছি ,টাকা দিয়েছি।কিন্তু মানুষ চাইছে ন্যায়।কামদুনি থেকে কুসমুন্ডির ঘটনা আজ মুখ্যমন্ত্রীর অপদার্থতা।পুলিশ প্রশাসনকে দিয়ে চোর,বদমাইশ,ডাকাতদের ধরার বদলে তাদের দিয়ে হাসপাতাল, স্কুল কলেজ ,বিশ্ববিদ্যালয় চালানো চেষ্টা করা হচ্ছে।তার জন্য হয়তো মুখ্যমন্ত্রী ডিলিট পাচ্ছেন,কিন্তু নারীদের সম্মান বাঁচানো যাচ্ছে না।
সংসদ আরো বলেন,হাসপাতালে চিকিৎসকদের সাথে কথা বলেছি।তারা জানাচ্ছেন নির্যাতিতা ধীরে কথা বলছে।সুস্থ হয়ে উঠছে।তবে তার এখনো চিকিৎসার প্রয়োজন রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.