August 19, 2022

কোচবিহার পৌরসভার টাকা তছরুপের মামলায় গ্রেফতার সাত

1 min read

(বর্তমানের কথা) : কোচবিহার কোতয়ালি থানার পুলিশ কোচবিহার পৌরসভার উন্নয়নের টাকা তছরুপের মামলায় তিন ইঞ্জিনীয়র সহ সাত জনকে গ্রেফতার করল   । রবিবার রাতে তাঁদের গ্রেফতার করা হয়েছে। আজ তাঁদের কোচবিহার আদালতে তোলা হয়। এই ঘটনার প্রধান অভিযুক্ত কোচবিহার পৌরসভার তৃণমূল কংগ্রেসের প্রাক্তন চেয়ারম্যান রেবা কুণ্ডু ও তাঁর ছেলে ১১ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর শুভজী কুন্ডু পলাতক বলে পুলিশ সূত্রে জানা গেছে। মা ও ছেলের  পাশাপাশি এই মামলার অরো দুই অভিযুক্ত কোচবিহার পৌরসভার তকালীন নির্বাহী আধিকারিক এম. এস মোল্লা এবং পৌরসভার তকালীন  হিসাব রক্ষক কনকেন্দ্র দাসও পলাতক বলে পুলিশ সূত্রে খবর।

গত ২০১৬ সালের ডিসেম্বর মাসে জনৈক সম্রাট কুন্ডু নামে এক যুবক কোচবিহার কোতয়ালি থানায় অভিযোগ করেন যে কোচবিহার পৌরসভার প্রায় ১ কোটি ৭৭ লক্ষ টাকার দুর্নীতি হয়েছে। কোন কাজ না করেই সেই টাকা ট্রেজারি থেকে তুলে নেওয়া হয়েছে। এই ঘটনায় অভিযোগ ওঠে পৌরসভার তকালীন চেয়ারপার্সন রেবা কুন্ডু তাঁর ছেলে ১১ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর শুভজি কুণ্ডুর বিরুদ্ধে। কোলকাতা হাই কোর্টের তত্ত্বাবধানে বর্তমানে তদন্ত করছে পুলিশ। এই দুর্নীতির মামলায় যুক্ত থাকার অভিযোগে এই সাত জনকে গ্রেফতার করল পুলিশ। গত  রাতে গ্রেফতারের পর আজ সকালে কোচবিহার পৌরসভার কাজকর্ম বন্ধ রাখেন পৌরকর্মীরা। তাঁদের অভিযোগ মূল অভিযুক্তদের গ্রেফতার না করে পুলিশ পৌর কর্মীদের গ্রেফতার করছে, তাঁদের দাবী কর্মীরা যা করেছেন তা তকালীন পদাধিকারীদের নির্দেশে করেছেন, তাই তাদের এই মামলা থেকে রেহাই দিতে হবে। এদিন কোচবিহার পৌরসভার চেয়ারম্যান বলেন পুলিশ ঘটনার তদন্ত করেছে, এই ঘটনায় সাত জন কর্মীকে গ্রেফতার করেছে। তিনি বলেন বিচার ব্যবস্থার উপর তাঁদের আস্থা রয়েছে, যদি কেউ দোষী হয় তবে শাস্তি পাবে। 

Leave a Reply

Your email address will not be published.