August 26, 2022

রাজবংশী উন্নয়ন পর্ষদ গঠিত হলেও নেই উত্তর দক্ষিণ ও মালদা জেলার প্রতিনিধি নেই অর্থের বরাদ্দ।

1 min read


তপন চক্রবর্তী (বর্তমানের কথা) ঃ দীর্ঘ আন্দোলনের পর যদিওবা উত্তরবঙ্গের রাজবংশী সমাজের উন্নয়নের কথা ভেবে  উত্তরবঙ্গের রাজবংশীদের জন্য উত্তরবঙ্গ রাজবংশী উন্নয়ন পর্ষদ গঠন করা হলেও তা নিয়ে গৌরবঙ্গের তিন জেলার রাজবংশী সমাজ প্রচন্ড ক্ষুব্ধ।জানা যায় উত্তরবঙ্গের রাজবংশী সমাজের জন্য নতুন এই সংস্থা গঠন হলেও সেখানে স্থান পায়নি উত্তরবঙ্গের উত্তর দক্ষিণ ও মালদা জেলার রাজবংশী সমাজের প্রথম সারির নেতৃবৃন্দ।শুধু তাই নয় উত্তরবঙ্গ রাজবংশী পর্ষদের জন্য প্রথম দশ কোটি টাকা রাজ্য সরকার মনজুর  করলেও সেই বরাদ্দকৃত অর্থ থেকে উত্তরবঙ্গের উত্তর দক্ষিণ ও মালদা জেলার রাজবংশীদের উন্নয়নের জন্য একটি টাকাও বরাদ্দ করা হয়নি।এই ঘটনায় তিন জেলার রাজবংশী সমাজের পিছিয়ে পড়া মানুষেরা এই ধরণের সিদ্বান্তে ব্যাপক ক্ষোভ প্রকাশ করে।নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক তিন জেলার রাজবংশী সমাজের বিশিষ্ট ব্যক্তিগণ ক্ষুব্ধ হয়ে বলেন উত্তরবঙ রাজবংশী উন্নয়ন পর্ষদ মনে  যদি কোচবিহার জলপাইগুড়ি আলিপুরদুয়ার দাজিলিং হয় তাহলে তা বিশাল ভুল করা হবে। কিন্তু এটা কেন হবে ।এই নিয়ে শুরু হয়েছে চুলচেরা বিশ্লেষণ রাজবংশী সমাজের মানুষদের মধ্যে।গৌরবঙ্গের তিন জেলার রাজবংশী সমাজের বিশিষ্ট ব্যাক্তিরা জানান উত্তরবঙ্গের উত্তর দক্ষিণ ও মালদা জেলার রাজবংশীরা প্রথম আনুমানিক কুড়িটি রাজবংশী সংগঠন মিলে তারা একটি রাজবংশী মঞ্চ গঠন করে।এরপর সেই মঞ্চ থেকেই জলপাইগুড়িতে মাননীয়া রাজ্যের মুখজ হাতে রাজবংশী উন্নয়ন  পর্ষদ গঠনের দাবি জানানো হয়েছিল।অথচ   আমাদের তিন জেলার প্রতিনিধিদের বাদ দিয়ে কিকারনে শুধুমাত্র কুচবিহার জলপাইগুড়ি আলিপুরদুয়ার ও দাজিলিং জেলার সদস্যদের সেখানে গুরুত্ব দেওয়া হলো প্রশ্ন এখানেই। উত্তরদিনাজপুর ও মালদা জেলার বেশ কয়েকজন রাজবংশী সমাজের প্রথম সারির নেতা ক্ষুব্ধ হয়ে বলেই ফেললেন যারা একসময় বিচ্ছিন্নবাদী আন্দোলনের সাথে যুক্ত ছিল আজ তাদেরকেই রাজবংশী উন্নয়ন পর্ষদ কমিটিতে রাখা হয়েছে যা অত্যন্ত অন্যায়। এসব নিয়ে নতুন করে ভাবনা চিন্তা না করলে তারা গৌরবঙ্গের তিন জেলার রাজবংশীদের নিয়ে আলাদা কিছু করবার চিন্তা ভাবনা শুরু করে দিয়েছেন বলে জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published.