August 14, 2022

গ্রিন সিটি মিশন প্রকল্পের মাধ্যমে কালিয়াগঞ্জ পৌরশহরের উচ্চবিদ্যালয়গুলিকে সাজানোর ব্যাপক উদ্দ্যেগ গ্রহণ করতে চলেছে পৌরসভা।

1 min read
তপন চক্রবতী : (বর্তমানের কথা) উত্তর দিনাজপুর জেলার কালিয়াগঞ্জ পৌরসভার গ্রিনসিটি মিশন প্রকল্পের মাধ্যমে কালিয়াগঞ্জ পৌরশহরে অবস্থিত বিভিন্ন উচ্চবিদ্যালয়গুলিকে ব্যাপকভাবে সাজানোর উদ্দ্যেগ নিতে চলেছে। এক সাক্ষাকারে বুধবার কালিয়াগঞ্জ পৌরসভার পৌরপতি কাতিক  চন্দ্র পাল বলেন শহরের বিদ্যালয়গুলির  সৌন্দয্যয়ন করবার জন্য পৌরসভা গ্রিনসিটি মিশন তারা কাজে লাগাবে। শহরের বিভিন্ন উচ্চ বিদ্যালয়ে সবুজয়ানের ব্যাবস্থা করা যেমন হবে ঠিক তেমনিভাবেই শহরের বিদ্যালয়গুলির  মাঠের দিকেও তারা এই প্রকল্পের মাধ্যমে দৃষ্টিনন্দন করার ব্যাবস্থা নেবেন বলে জানান। পৌরপিতা কাতিক পাল বলেন ২০১৮-১৯ বষে কালিয়াগঞ্জ পৌরশহরের দুটি উচ্চবিদ্যালয় সহ মোট ৬টি বিদ্যালয়কে প্রথম অবস্থায় এই প্রকল্পের অন্তভূক্ত করা হবে বলে জানান।তিনি বলেন পরবতী অথবষে শহরের ১০টি শিশুশিক্ষা কেন্দ্রসহহ দুইটি জুনিয়ার হাই স্কুলের সৌন্দযায়ন করা হবে।পরবতীতে ২৩ টি প্রাথমিক বিদ্যালয়কে এই প্রকল্পের মাধ্যমে আনা হবে বলে জানান। পৌরপিতা বলেন প্রথমে শহরের ৬টি বিদ্যালয়কে এই প্রকল্পের আওতায় এনে বিদ্যালয়গুলিকে পরিস্কার পরিচ্ছন্ন করার ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এর পর সেই বিদ্যালয়গুলির রং করার ব্যাবস্থা এই প্রকল্পের মাধ্যমে নেওয়া হবে ।

এখানেই শেষ নয় বিদ্যালয়ের পরিবেশ ফুটিয়ে তুলতে এইসব বিদ্যালয় চত্তরে বিভিন্ন ধরনের ফুলের বাগান তৈরী করা হবে যা সত্যি দেখবার মত করে করা হয়। পৌরপিতা কাতিক পাল বলেন বতমানে কালিয়াগঞ্জ পৌরশহর সংলগ্ন বিদ্যালরের মাঠগুলির সন্ধার পর নানা ধরনের সমাজ বিরোধীদের আড্ডাস্থল হয়ে দাড়িয়েছে। শহরের বিদ্যালয়ের মাঠগুলি সমাজবিরোধী দখল করে যা খুশি তাই করবে আমদের চোখের সামনে তা কালিয়াগঞ্জ পৌরসভা কোন ভাবেই মেনে নিতে পারেনা।কারন এর ফলে কচিকাচা  পড়ুয়াদের অনেক ক্ষতির সম্ভাবনা থেকে যায়। আমরা মুখ বুঝে কোনভাবেই থাকতে পারিনা। তাই সমাজবিরোধীদের আড্ডা ভাঙ্গতেই শহরের উচ্চবিদ্যালয়গুলির মাঠে গ্রিন সিটি মিশন প্রকল্পের মাধ্যমে ব্যাপক আলোর ব্যাবস্থা করা হবে খুব শিঘ্রই। কালিয়াগঞ্জ পৌরসভার পৌরপিতার এই দুঃসাহসিক পদক্ষেপের জন্য কালিয়াগঞ্জ পৌর শহরের সমস্ত বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সহ সমস্ত স্তরের মানুষ সাধুবাদ জানিয়েছেন।এই ধরনের উদ্দ্যগের ফলে একদিকে  যেমন বিদ্যালয়ের পরিবেশ তৈরী হবে। অপরদিকে সন্ধ্যার পর বিদ্যালয়ের মাঠগুলি সমাজবিরোধীমুক্ত মাঠে পরিনত হতে পারবে বলে অধিকাংশ মানুষ মনে করে।কা
লিয়াগঞ্জের তৃনমূল পরিচালিত পৌরসভা কালিয়াগঞ্জ শহরের সাবিক উন্নয়নের লক্ষে যে ভাবে পরিকল্পনা নিয়েছে তা এককথায় অভিনন্দন যোগ্য।

Leave a Reply

Your email address will not be published.