April 24, 2024

কালিয়াগঞ্জ শহরে পার্থ ঘনিষ্ঠদের বাড়িতে গিয়ে টাকা ফেরতের দাবিতে হামলার আতঙ্কে অনেক শাসক দলের কর্মীরা গা ঢাকা দিয়েছে

1 min read

কালিয়াগঞ্জ শহরে পার্থ ঘনিষ্ঠদের বাড়িতে গিয়ে টাকা ফেরতের দাবিতে হামলার আতঙ্কে অনেক শাসক দলের কর্মীরা গা ঢাকা দিয়েছে

তপন চক্রবর্তী- কালিয়াগঞ্জ,১১ আগস্ট:কালিয়াগঞ্জ শহরে ইডির হানার আতঙ্কের চেয়েও বেশি আতঙ্কে ভুগছে কালিয়াগঞ্জের এক শ্রেণীর তৃণমূল নেতারা।যারা চাকরি দেওয়ার নাম করে লক্ষ লক্ষ টাকা বছরের পর বছর আটকে রেখে দিলেও না দিতে পেরেছে চাকরি না ফেরত দিতে পেরেছে লক্ষ লক্ষ টাকা। সম্প্রতি প্রাক্তন শিক্ষা মন্ত্রী তথা প্রাক্তন শিল্প মন্ত্রী শিক্ষক নিয়োগে দুর্নীতির অভিযোগের ভিত্তিতে গ্রেপ্তার হবার পর থেকেই উত্তর দিনাজপুর জেলার রায়গঞ্জ ও কালিয়াগঞ্জ শহরে বিভিন্ন এলাকায় তৃণমূল নেতাদের টাকা দিয়েও যারা চাকরি পায়নি তারা সরব হয়ছে ।

এত দিন কষ্ট করে মুখ বুজে থাকলেও প্রাক্তন শিক্ষা মন্ত্রীর গ্রেপ্তার হবার পরেই এরা জোট বাঁধতে শুরু করে দিয়েছে।ইতিমধ্যেই উত্তর দিনাজপুর জেলার কালিয়াগঞ্জ শহরের ১২.নম্বর ওয়ার্ডের জনৈক তৃণমূল নেতার বাড়িতে গিয়ে চাকরির জন্য টাকা ফেরতের দরবার। আট লক্ষ্ টাকা দিয়েছিল যিনি তিনি একটি চাকরি পাবে বলে। চাইতে যায় জনৈক চাকরি প্রার্থী।কিন্তু সেই তৃণমূল নেতা চাকরি প্রার্থীকে বলেন তিনি তিন লক্ষ টাকার বেশি দিতে পারবেনা।এই কথা শুনে চাকরি প্রার্থী বলেন পুরো টাকা না দিলে আপনার বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দায়ের করা হবে।এই কথা শোনার পর তৃণমূল নেতা বলে তাকে সময় দিতে হবে।কিন্তু চাকরি প্রার্থী বলেন তিনি সুদের উপর আট লক্ষ টাকা এনে তাকে দিয়েছে তাই সুদ টানা তার পক্ষে কোন ভাবেই সম্ভব নয়।তৃণমূল নেতা সেই যুবককে প্রতিশ্রুতি দিয়ে বলে তাকে কিছু সময় দিতেই হবে।কারন সব টাকাইতো কলকাতায় পাঠাতে হয়ছে। ওরাতো আর টাকা ফেরত দেবেনা। কালিয়াগঞ্জ শহরে অনেক তৃণমূল নেতা আছে যারা চাকরি দেবার নাম করে টাকা নিয়েছে অথচ চাকরি দিতে পারেনি তারা বেশ কয়েকদিন থেকেই পরিস্থিতির উপর নজর রেখে চলেছে। পরিস্থিতি কিছুটা শান্ত হলেই তারা ঘরে ফিরবে বলেই মনে করছে। অন্যদিকে ইডির হানার ভয়ে দুই একজন রাঘব বোয়াল তারা এমন কোন জায়গায় গা ঢাকা দিয়ে আছেন যাদের অনেকের ফোন সুইচ অফ করে রাখা হয়েছে। তবে এটা নিশ্চিত ভাবেই বলা যেতে পারে রায় গঞ্জ ও কালিয়াগঞ্জ শহরেই এমন অনেক তৃণমূলের সদস্য আছে যারা প্রচুর টাকা দিয়ে ও কোন চাকরি গোছাতে পারেনি তাত ছেলে অথবা মেয়ের জন্য। যারা শুধু সুযোগের অপেক্ষায় আছে।যে কোন মুহুর্তে অঘটন ঘটলেও ঘটতে পারে বলে রাজনৈতিক মহল মনে করছে। এ ব্যাপারে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের উত্তরে উত্তর দিনাজপুর জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি কনাইয়ালাল আগরওয়াল বলেন এ সম্পর্কে আমার কিছু বলার নেই। কোন মন্তব্য করতে পারবোনা বলেই তার কথা শেষ করেন। অপর দিকে সদ্য তৃণমূল দলের উত্তর দিনাজপুর জেলার চেয়ারম্যান সচিন সিংহ রায়কে এ ব্যাপারে কিছু জানতে চাইলে তিনি বলেন তৃণমূল একটি সর্ব ভারতীয় দল। বড় দলে এরকম ছোটখাটো ঘটনা ঘটেই থাকে।তবে দল এ ব্যাপারে যথেষ্ট তৎপর।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *