April 21, 2024

আসন্ন পঞ্চায়েত নির্বাচনকে সামনে রেখে গ্রামে গিয়ে ঝড় তুললেন জেলা বিজেপি সাধারণ সম্পাদক কার্তিক চন্দ্র পাল।

1 min read

আসন্ন পঞ্চায়েত নির্বাচনকে সামনে রেখে গ্রামে গিয়ে ঝড় তুললেন জেলা বিজেপি সাধারণ সম্পাদক কার্তিক চন্দ্র পাল।

তন্ময় চক্রবর্তী উত্তর দিনাজপুর এই মুহূর্তে সবচেয়ে বড় খবর তৃণমূলের সবচেয়ে বড় কেলেঙ্কারি কে হাতিয়ার করে এবার আজ থেকে আসন্ন পঞ্চায়েত নির্বাচনের দামামা বাজিয়ে দিল কালিয়াগঞ্জ এ বিজেপি। বিজেপির জেলা সাধারণ সম্পাদক কার্তিক চন্দ্র পালের নেতৃত্বে কালিয়াগঞ্জের এক নম্বর অনন্তপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের রাসূলি মেলা ময়দান এ আজ থেকেই শুরু হলো এই পঞ্চায়েত দখলের অভিযান।।

 

 

যার আয়োজক ছিল 27 নম্বর বিজেপি গ্রাম মন্ডল কমিটি। এদিন প্রচুর মানুষের উপস্থিতিতে বিজেপি নেতা কার্তিক চন্দ্র পাল তার ঝাঁঝালো বক্তব্য দিতে গিয়ে বলেন আগামী পঞ্চায়েত নির্বাচনে কালিয়াগঞ্জের প্রতিটি বুথ জেতাতে হবে বিজেপিকে।।

 

প্রতিটি বুথ জেতাতে হবে তার একটি মাত্র কারণ ,বুথ জেতা তো দেশ জেতা। মোদি জি ও অমিত শা জি বলেছেন বুথ জেতা তো অঞ্চল জেতা। অঞ্চল জেতা তো পঞ্চায়েত সমিতি জেতা । পঞ্চায়েত সমিতি জেতা তো জেলা পরিষদ জেতা। কার্তিক বাবু এদিন বলেন নিজেদের মধ্যে ভুল বোঝাবুঝি রাখবেন না। একটা কথা মাথায় রাখবেন আমরা সবাই বিজেপি করি। আর বিজেপি পরিবার সারা পৃথিবীর মধ্যে সবচেয়ে বড় পরিবার। এই পরিবারে আমরা সবাই সদস্য। তিনি কর্মীদের প্রতি বার্তা দিতে গিয়ে বলেন পুরনো কর্মীদের সম্মান দিয়ে তাদের কাছে নিয়ে আসুন।। অনেক পুরনো কর্মী আছে যাদের মনে দুঃখ আছে তাদের বাড়ি যান তাদের অভাব অভিযোগ শুনুন।।

 

 

যারা আমাদের দুর্দিনে ছিল তাদেরকে সম্মান দিয়ে সামনে সারিতে নিয়ে আসুন। সবাইকে ঐক্যবদ্ধভাবে লড়াই করে আগামী দিনে আমাদের পঞ্চায়েত নির্বাচনে দারুণভাবে সফল হতে হবে। কার্তিক বাবু বলেন আপনারা হাটে হাটে একটি করে মিছিল করুন। চোর ধর জেল ভরো স্লোগান দিয়ে। তাহলে মানুষদের কাছে আমরা অনেক বেশি বেশি করে পৌঁছাতে পারবো। কার্তিক বাবু বলেন আপনারা কেউ ভয় পাবেন না। ভয়ের দিন চলে গেছে। আপনারা গত ১৮ তে যে লড়াই করেছেন তার চেয়ে এবার বেশি লড়াই করতে হবে।। এবার সবচেয়ে বড় কথা নমিনেশন সাবমিট হবে। নমিনেশন সাবমিট নিয়ে কেউ ঘাবড়াবেন না। এদিন তিনি কর্মীদের উদ্দেশ্যে বক্তব্য রাখতে গিয়ে বলেন আপনারা কিছু কিছু কথা প্রকাশ্যে বলবেন না। কারণ প্রত্যেক দলেরই একটা গেমপ্লেন থাকে। আর সেই প্ল্যান যদি ফাঁস হয়ে যায় তাহলে শাসকদলের সুবিধা হয়ে যাবে। তিনি বলেন এলাকাভিত্তিক অনেক সমস্যা আছে আছে জানি। কিন্তু সেই সমস্যার ও সমাধান হাজারো সমস্যার মধ্যেও আমাদের সাংসদ দেবশ্রী চৌধুরী কাজ করে চলছেন। কার্তিক বাবু বলেন ব্যক্তি চিন্তা ছেড়ে দিয়ে সঙ্ঘবদ্ধ লড়াই করে আগামী দিনে বিজেপিকে একটা নতুন জায়গায় নিয়ে যেতে হবে আমাদের সবাইকে।। কার্তিক বাবু এদিন তৃণমূলের দুর্নীতি প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে বলেন এরা মানুষের জন্য কাজ করে না এরা শুধু ক্ষমতায় থেকে কিভাবে নিজেদের আখের বোঝাতে পারবে তারই চেষ্টা করে যায় প্রতিনিয়ত। তার প্রকৃষ্ট উদাহরণ প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় এর সাম্প্রতিক কাহিনী। তিনি বলেন তৃণমূলের নেতারা মানুষের কাজের চেয়ে নিজেদের কাজে ব্যস্ত থাকেন ।সবসময় তারা মানুষকে ঠকিয়ে লক্ষ লক্ষ টাকা চাকরি দেবার নাম করে শহর এবং গ্রাম থেকে তুলেছে। এবার যারা সেই অপকর্মের সঙ্গে যুক্ত তাদের বিচার করার সময় এসেছে।। কর্মীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন আপনারা দেখতে থাকুন, পাপ কোনদিনও বাপকেও ছাড়ে না। তাই কোটি কোটি টাকার পাহাড় করে যারা অট্টলিকা মধ্যে দিনের বেলাতেই স্বপ্ন দেখছেন চাঁদে যাওয়ার তাদের ইডি পাতাল থেকে বের করে আনবে এবং তাদের শাস্তি হবে ই।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *